ঢাকা, সোমবার, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৭ মে ২০২৪, ১৮ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

এক আসামির জবানবন্দি

চেয়ারম্যান প্রার্থী দেলোয়ারকে অপহরণ-মারধর করেন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর লোকজন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০২৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৮, ২০২৪
চেয়ারম্যান প্রার্থী দেলোয়ারকে অপহরণ-মারধর করেন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর লোকজন

নাটোর: নাটোরের সিংড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী দেলোয়ার হোসেনকে তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী লুৎফুল হাবীব রুবেলের লোকজনই অপহরণ ও মারধর করেছেন। এ তথ্য জানিয়েছেন প্রার্থীকে অপহরণ ও মারধর মামলা গ্রেপ্তার আসামি যুবলীগ নেতা মো. সুমন আহমেদ (৩০)।

বুধবার (১৭ই এপ্রিল) দুপুরে নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নাটোরের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে অপহরণ ও মারধর  মামলায় গ্রেপ্তার যুবলীগ নেতা সুমন ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন। এতে তিনি পুরো ঘটনা স্বীকার করেন। তার সঙ্গে আরও কারা কারা ছিলেন তাও বলেছেন। তদন্তের স্বার্থে সে নামগুলো আমরা বলতে চাচ্ছি না।

বাংলানিউজকে তিনি আরও বলেন, গ্রেপ্তার হওয়া যুবলীগ নেতা সুমন ও নাজমুল হককে মঙ্গলবার বিকেলে নাটোর সদর আমলি আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) জামাল হোসেন আসামি সুমন আহমেদের জবানবন্দি ১৬৪ ধারায় লিপিবদ্ধ করার জন্য আদালতে আবেদন করেন। আদালত এ ব্যাপারে সুমনের বক্তব্য জানতে চান এবং এ বিষয়ে চিন্তা করার পর্যাপ্ত সময় দেন।

দীর্ঘ সময় পর তিনি জবানবন্দি দিতে সম্মত হন। সন্ধ্যার পরে ওই আদালতের দায়িত্বপ্রাপ্ত জেলার অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রওশন আলম তার জবানবন্দি গ্রহণ করেন। জবানবন্দি শেষে সুমন ও নাজমুলকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জেলা নির্বাচন কার্যালয় ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে সিংড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রার্থী দেলোয়ার হোসেনকে অপহরণ ও মারধর করা হয়। দেলোয়ার হোসেনের একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী লুৎফুল হাবীবের পক্ষ নিয়ে এই ঘটনা ঘটিয়েছেন তারা। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। দ্রুতই তাদের গ্রেপ্তার করা হবে বলেও ওসি জানান।

বাংলাদেশ সময়: ০০১৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৮, ২০২৪
এমজে

 
 

 

 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।