ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২১ মে ২০২৪, ১২ জিলকদ ১৪৪৫

অফবিট

পুলিশ প্লেনে, চোর ট্রেনে!

অফবিট ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২৪ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩, ২০১৯
পুলিশ প্লেনে, চোর ট্রেনে! প্রতীকী ছবি

মনিবের বাড়ি থেকে সোনাদানা, টাকা-পয়সা চুরি করে সটকে পড়তে চেয়েছিল চোর। এজন্য ঠিকঠাক ট্রেনেও চড়ে বসেছিল সে। কিন্তু, বিধিবাম! ট্রেন থেকে নামতেই হাতে হাতকড়া পরিয়ে দিল পুলিশ। আর এটা করতে চোর যখন ট্রেনে, পুলিশ সদস্যরা তখন প্লেনে করে আরেক রাজ্যে এসে পড়েন।

সম্প্রতি ভারতে ঘটেছে এ ঘটনা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, এবারের দীপাবলি উৎসবের দিন (২৭ অক্টোবর) ব্যাঙ্গালুরুর ব্যবসায়ী মেহাক ভি পিরাগলের বাড়িতে সহায়কের কাজ শুরু করেন কুশল সিং নামে এক যুবক।

পরিচিত এক পরিবারের সুপারিশে তাকে চাকরি দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু, কঠোর পরিশ্রম নয়, খুব শিগগিরই বড়লোক হওয়ার বাসনা ছিল ২১ বছর বয়সী এ যুবকের মনে।

ঘটনার দিন সন্ধ্যায় নিজেদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পূজার জন্য বের হন মেহাক পরিবার। কুশলকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল বাড়ি দেখাশোনার। কিন্তু, ঘণ্টা দুয়েক পরে তারা বাসায় ফিরে দেখেন সব এলোমেলো, আলমারি ভাঙা, সোনাদানা, টাকা-পয়সা সব গায়েব। খোঁজ নেই রক্ষকের বেশে ভক্ষক কুশলেরও।

দ্রুত পুলিশে খবর দেন ভুক্তভোগী মেহক ভি পিরাগল। কুশলের ফোনকল রেকর্ড থেকে পুলিশ জানতে পারে, সে ট্রেনে করে আজমীরের উদ্দেশে রওয়ানা হয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে প্লেনে করে জয়পুর যান পুলিশ কর্মকর্তারা, সেখান থেকে পৌঁছান আজমীরে।

ঘটনার তিনদিন পর আজমীর পৌঁছান কুশল সিং। তার আগেই রেলস্টেশনে পৌঁছে বসেছিল পুলিশ। ট্রেন থেকে নামার সঙ্গে সঙ্গেই তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরে, অভিযুক্তকে নিয়েই আবার ব্যাঙ্গালুরু রওয়ানা দেন ওই চৌকস পুলিশ সদস্যরা।  

পুলিশ জানিয়েছে, কুশল প্রথমবারের মতো ব্যাঙ্গালুরু এসেছিল। এর আগে তার কোনো ক্রিমিনাল রেকর্ডও নেই। তার ইচ্ছা ছিল দ্রুত বড়লোক হওয়ার। কিন্তু, এর জন্য সে ভুল পথ বেছে নিয়েছে। চুরি করা মালামাল বিক্রির আগেই ধরা পড়েছে কুশল সিং।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৩, ২০১৯
একে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।