ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ মাঘ ১৪২৯, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১০ রজব ১৪৪৪

অফবিট

গাইবান্ধার ঐতিহ্যবাহী উৎসবের নাম ‘বৈত’

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ৯, ২০২২
গাইবান্ধার ঐতিহ্যবাহী উৎসবের নাম ‘বৈত’

গাইবান্ধা: গাইবান্ধায় ঐতিহ্যবাহী বৈত উৎসবে মেতেছেন মাছ শিকারিরা। প্রতিবছর শীতের আগে খাল-বিল, জলাশয়ে যখন পানি কম থাকে, তখন দল বেঁধে হইহুল্লোড় করে মাছ শিকারে নামেন গাইবান্ধাবাসী।

প্রতিবছর এ মৌসুমে একেক দিন একেক জলাশয়ে মাছ ধরা হয়।  

ফলে মাছ শিকার পরিণত হয় উৎসবে। অনেক স্থানে একে পলো বাওয়া, বাউত উৎসবসহ নানা নাম দেওয়া হলেও গাইবান্ধায় আঞ্চলিকভাবে এটি বৈত উৎসব নামে পরিচিত।  

গাইবান্ধা সদর উপজেলার কুপতলা ইউনিয়নের উইয়ার বিলে এমনই বৈত উৎসব হয়ে গেল মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) দুপুরে। সেখানে গিয়ে দেখা যায়, অন্তত তিনশ’ লোক মাছ ধরছেন।  

হাতে-কাঁধে পলো, হ্যাংগার জালি, পলো জালি, হ্যাগা, মুঠ জাল, কোঁচ, ক্যাটা, তৌরা জাল, ঝাঁকি জাল নিয়ে মাছ ধরছেন তারা।

স্থানীয়রা জানান, জেলার সাতটি উপজেলাতেই মাছ শিকারি দল রয়েছে। বৈত দলগুলো আলোচনার মাধ্যমে মাছ শিকারের জন্য নির্দিষ্ট জলাশয়, তারিখ, সময়, যাত্রার স্থান নির্ধারণ করে জানিয়ে দেওয়া হয়। প্রতিটি বৈত দলের একজন দলনেতা থাকেন।  

মাছ শিকরিরা জানান, অনেকেই ২০-২৫ বছর ধরে প্রতি বছর বৈতে অংশ নিচ্ছেন। আবার অনেকেই শখের বসে এসেছেন। এখানে এসে বেশিরভাগ লোকই কমবেশি মাছ পান। আবার কোনো মাছই পান না। তারপরও এটি একটি আনন্দ-নেশা।

নির্দিষ্ট এলাকায় এবং নির্দিষ্ট সময়ে বৈত উৎসবে যোগ দেন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।  

পূর্বনির্ধারিত বিল-জলাশয়ে দলবদ্ধ হয়ে মাছ শিকার চলে দিনভর। এতে কোনো বাধ্যবাধকতা নেই, যে কেউ এতে অংশ নিতে পারেন।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৬ ঘণ্টা, নভেম্বর ৯, ২০২২
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa