ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২১ মে ২০২৪, ১২ জিলকদ ১৪৪৫

বাজেট

বাজেটে আশা দীর্ঘ, আশ্বাস সংক্ষিপ্ত

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬৫৫ ঘণ্টা, জুন ২০, ২০১৭
বাজেটে আশা দীর্ঘ, আশ্বাস সংক্ষিপ্ত প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে বিশ্বব্যাংকের সংবাদ সম্মেলন/ছবি: শাকিল

ঢাকা: প্রস্তাবিত বাজেটে অনেক লক্ষ্যমাত্রা আশার ওপর ভিত্তি করে নির্ধারণ করা হয়েছে। বাস্তবতার সঙ্গে এ বাজেটের অনেক কিছুই মিল নেই। বাজেটে আশা দীর্ঘ, আশ্বাস সংক্ষিপ্ত বলে মন্তব্য করেছে বিশ্বব্যাংক।

সংস্থাটির মতে, বিদেশ ভ্রমণে যে শুল্ক বাড়ানো হয়েছে তাতে বিদেশি ডেলিগেটস ভ্রমণে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে। আবগারি শুল্ক বৃদ্ধিতে ব্যাংক লেনদেনেও একটা নেতিবাচক প্রভাব পড়বে মনে করছে সংস্থাটি।


 
মঙ্গলবার (২০ জুন) সকালে নগরীর বিশ্বব্যাংকের অফিস আগারগাঁওয়ে প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব মন্তব্য করে সংস্থাটি।  

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত রয়েছেন বিশ্বব্যাংকের বাংলাদের আবাসিক প্রতিনিধি চিমিও ফান, ঢাকার লিড ইকনোমিস্ট জাহিদ হোসেইন। এছাড়া বিশ্বব্যাংকের অর্থনীতিবিদ শেখ তানজিব ইসলাম, অ্যানালিস্ট সাবিহা সুবহা মোহনা ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মেহরিন এ মাহবুব উপস্থিত ছিলেন।
 
প্রস্তাবিত বাজেটে নতুন কোনো চমক নেই। সব কিছুই গতানুগতিক। রেমিটেন্স খাতেও তেমন সুবাতাস নেই। এখন ১৪ শতাংশ নেতিবাচক প্রভাব এই খাতে রয়েছে। বাজেট সংষ্কারে স্বীকৃতি আছে, কিন্তু পদক্ষেপ নাই। ’
 
ব্যাংক খাত প্রসঙ্গে জাহিদ হোসেন বলেন, ব্যাংকিং খাত নিয়েও তেমন কোনো আশার আলো নাই। সঞ্চয়পত্রে সুদের হার কমানো হবে এটা এখনও নির্দিষ্ট নয়। সরকারের উচিত এখাতে কোনো সংস্কার নাই।

জাহিদ হোসেন বলেন, গত তিন বছর ধরে প্রথম পর্যায়ে এডিপি বাস্তবায়ন ধীরগতি। তবে পরবর্তী পর্যায়ে এটা দ্রুত গতিতে বাস্তবায়িত হচ্ছে। চালে ভর্তুকি দেয়া হচ্ছে। ভাগ্যক্রমে তেলে লাভ হচ্ছে। তবে দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যুৎ লোকসানে রয়েছে।
 
ঢাকার লিড ইকনোমিস্ট জাহিদ হোসেইন বলেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় আমাদের দেশে প্রকল্প বাস্তবায়ন ব্যয় অনেক বেশি। এর প্রধান কারণ টেন্ডারিংয়ে প্রতিযোগিতা অনেক কম। তাই সরকারের উচিত ৮০ শতাংশ ই-টেন্ডারিং করা। এটা করতে পারলে টেন্ডারিংয়ে প্রতিযোগিতা বাড়বে এবং প্রকল্প বাস্তবায়ন খরচ কমবে।
 
চাল প্রসঙ্গে বলেন, চালের আমদানি সহজ করতে হবে। সরকারের উচিত চালের মজুদ বৃদ্ধি করা। চালের শুল্কের ক্ষেত্রে দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে হবে। ২৮ শতাংশ শুল্ক কমানো হবে, এটা বার বার বললে বাজার পরিস্থিতি অস্থির হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১২৫০ ঘণ্টা, জুন ২০, ২০১৭
এমআইএস/এসএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।