ঢাকা, সোমবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০, ২৯ মে ২০২৩, ০৯ জিলকদ ১৪৪৪

ক্রিকেট

পাকিস্তানকে হারিয়ে সিরিজ জিতল আফগানিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৩৬ ঘণ্টা, মার্চ ২৭, ২০২৩
পাকিস্তানকে হারিয়ে সিরিজ জিতল আফগানিস্তান

জয়ের জন্য শেষ দুই বলে প্রয়োজন দুই রানের। কিন্তু নাজিবুল্লাহ জাদরান আর শেষ বলের অপেক্ষায় থাকেননি।

জামান খানের পঞ্চম বলটি তিনি থার্ডম্যান দিয়ে বাউন্ডারি ছাড়া করতেই ইতিহাস গড়ে ফেলে আফগানিস্তান। দুই দিন আগে পাকিস্তানকে প্রথম হারের স্বাদ দেওয়া দলটি এবার সিরিজও জিতে নিল। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ৭ উইকেটের জয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ নিশ্চিত করল আফগানরা।  

এক বল হাতে রেখে জয় মানে লক্ষ্য তাড়া করা খুব একটা সহজ ছিল না আফগানদের জন্য। আগের ম্যাচের তুলনায় এবার কিছুটা উন্নতি ঘটে পাকিস্তানি ব্যাটারদের। টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে ৬ উইকেটে ১৩০ রান করে তারা।  জবাব দিতে নেমে পাওয়ার প্লেতে ১ উইকেট হারিয়ে ৪৫ রান তোলে আফগানিস্তান। শারজার মন্থর উইকেট বিবেচনায় পাওয়ার প্লেতে ৭ এর উপর রানরেটকে খাটো চোখে দেখাটা মুশকিল।

পাকিস্তানের মতো অবশ্য নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায়নি আফগানরা। দ্বিতীয় উইকেটে ৫৬ রানের জুটি গড়েন রহমানউল্লাহ গুরবাজ ও ইব্রাহিম জাদরান। কিন্তু সেজন্য ৬৮ বল খরচ করেন তারা। আফগানদের জয়ের পথটা খানিকটা কঠিন হয়ে যায়।  গুরবাজ ব্যক্তিগত ৪৪ রানে ফেরার পর জাদরানও (৩৮) খুব বেশিক্ষণ টেকেননি।  তবে উইকেট হাতে থাকায় আত্মবিশ্বাস টলেনি তাদের। চতুর্থ উইকেটে ১৫ বলে অবিচ্ছিন্ন ৩১ রানের জুটিতে লক্ষ্যকে হাতের নাগালে আনেন নাজিবুল্লাহ ও মোহাম্মদ নবি। শেষ দুই ওভারে জয়ের জন্য ২২ রান প্রয়োজন ছিল তাদের। তবে নাসিম শাহর করা ১৯ তম ওভারে ১৭ রান আদায় করে নেন দুজনে। তাই শেষ ওভারে খুব একটা চাপ পড়েনি।  ১২ বলে ২ চার ও ১ ছয়ে ২৩ রানে অপরাজিত ছিলেন নাজিবুল্লাহ। অপর দিকে ৯ বলে ১৪ রান করেন নবি। পাকিস্তানের হয়ে একটি করে উইকেট শিকার ইহসানউল্লাহ ও জামান খানের।

শুরুতে ব্যাট করতে নামা পাকিস্তানের প্রথম ওভারেই জোড়া শিকার করেন আফগান পেসার ফজলহক ফারুকি। ইনিংসের দ্বিতীয় বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয় সাজঘরে ফেরেন ওপেনার সাইম আইয়ুব। রানের খাতাটাও খুলতে পারেননি তিনি।  পরের বলে আব্দুল্লাহ শফিককে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন ফারুকি।  টি-টোয়েন্টিতে প্রথম ব্যাটার হিসেবে টানা চার ইনিংসে ডাক মারার রেকর্ড গড়েন শফিক। শুরুর ধাক্কার পর  প্রথম দশ ওভারে সেভাবে রান পায়নি পাকিস্তান। ৬৩ রানেই হারায় ৫ উইকেট। তবে ষষ্ঠ উইকেটে ৬৬ রানের জুটিতে দলকে লড়াকু সংগ্রহ এনে দেন ইমাদ ওয়াসিম ও শাদাব খান। ইনিংসের শেষ বলে আউট হওয়ার আগে ২৫ বলে ৩২ রান করেন শাদাব। অন্যদিকে ৫৭ বলে ৩ চার ও ২ ছক্কায় ৬৪ রানে অপরাজিত থাকেন ইমাদ। কিন্তু দিনশেষে ভেস্তে যায় তার ইনিংস।

৪ ওভারে এক মেডেনসহ ২ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হন ফারুকি। এছাড়া একটি করে উইকেট নেন রশিদ খান, নাভিন উল-হক ও করিম জানাত। এদিকে সিরিজের শেষ ও তৃতীয় টি-টোয়েন্টি মাঠে গড়াবে ২৭ মার্চ বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায়।   

বাংলাদেশ সময়ঃ ০১৩৬ ঘণ্টা, মার্চ ২৭, ২০২৩

এএইচএস 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa