ঢাকা, রবিবার, ১০ আশ্বিন ১৪২৯, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২৭ সফর ১৪৪৪

ক্রিকেট

দ্বিতীয় ম্যাচেই ঘুড়ে দাঁড়াল নিউজিল্যান্ড

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৩৯ ঘণ্টা, আগস্ট ২০, ২০২২
দ্বিতীয় ম্যাচেই ঘুড়ে দাঁড়াল নিউজিল্যান্ড

তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ক্যারিবীয়দের কাছে ৫ উইকেটে হেরেছিল কিউইরা। দ্বিতীয় ম্যাচেই ঘুরে দাঁড়াল সফরকারী নিউজিল্যান্ড।

শনিবার (২০ আগস্ট) ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে বৃষ্টিবিঘ্নিত দ্বিতীয় ম্যাচে ৫০ রানে জয় পেয়েছে লাথামের দল।

বার্বাডোজের ব্রিজটাউনে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই বিপদে পড়েছিল কিউইরা। ৩১ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছিল নিউজিল্যান্ড। তবে এক প্রান্ত আগলে রেখে ব্যাটিং করতে থাকেন ফিন অ্যালেন। চতুর্থ উইকেটে মিচেলকে নিয়ে ৮৪ রানের জুটি কিছুটা রক্ষা করে তাদের। তবে এরপর আবারো ক্রিজে আসা-যাওয়ার মিছিলে যোগ দেন ব্রেসওয়েল, নিশামরা। শেষ পর্যন্ত ৪৮.২ ওভার খেলে ২১২ রানেই গুটিয়ে যায় কিউইদের ইনিংস। মাত্র চার রানের জন্য শতকের দেখা পাননি অ্যালেন।

বোলিংয়ে নিউজিল্যান্ডের দুই তারকা পেসার ট্রেন্ট বোল্ট ও টিম সাউদি রীতিমতো তাণ্ডব চালান ক্যারিবীয়দের টপঅর্ডারের ওপর। দুজনের শুরুর স্পেলেই ম্যাচ থেকে পুরোপুরি ছিটকে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। যেখানে মাত্র ২৭ রান তুলতেই সাজঘরে ফিরে যান ছয় ব্যাটার। সাউদি-বোল্ট দুজনই নেন তিনটি করে উইকেট।

মাত্র ২৭ রানে ৬ উইকেট পড়ার পর প্রতিরোধের চেষ্টা করেন আকিল হোসেন, ক্যাসে কার্টি, ইয়ানিক কারিয়াহরা। সপ্তম ও অষ্টম উইকেটে আসে আরও ৪৫ রান। তবু ৭২ রানে ৮ উইকেট হারিয়ে বড় পরাজয়ের শঙ্কায়ই ছিল স্বাগতিক দলটি। খানিক পরেই নামে বৃষ্টি, যা কমিয়ে দেয় ৯ ওভার।

ওভার নয়টি কমলেও, বৃষ্টি আইনে রান কমে মাত্র এক! অর্থাৎ ক্যারিবীয়দের সামনে ৪১ ওভারে নতুন লক্ষ্য দাঁড়ায় ২১২ রানের। বৃষ্টির পর খেলা শুরু হলে স্বাগতিক দর্শকদের মনে আশার সঞ্চার করেন ইয়ানিক কারিয়াহ ও আলজারি জোসেফ। মারমুখী ব্যাটিংয়ে জয়ের কিঞ্চিত সম্ভাবনাও তৈরি করেন দুজনে।

তাদের ১০.৪ ওভারের জুটিতে আসে ৮৫ রান। যা কি না নবম উইকেটে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সর্বোচ্চ। দ্বিতীয় স্পেলে আক্রমণে ফিরে ইনিংসের ৩৫তম ওভারে জোসেফকে বোল্ড করেন সাউদি। তাতেই শেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজের সব আশা। আউট হওয়ার আগে পাঁচ চার ও দুই ছয়ে ৩১ বলে ৪৯ রান করেন জোসেফ।

এরপর আর বেশি দূর যেতে পারেননি কারিয়াহ। মিচেল স্যান্টনারের বলে ক্যাচ আউট হওয়ার আগে ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটিতে কারিয়াহর ব্যাট থেকে আসে ৫২ রান। শেষ পর্যন্ত ১৬১ রানে থামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইনিংস। নিউজিল্যান্ডের পক্ষে সাউদি চারটি, বোল্ট তিনটি, স্যান্টনার ও গ্লেন ফিলিপস নেন একটি করে উইকেট।

এ জয়ে পঞ্চম দল হিসেবে বিশ্বকাপ সুপার লিগে পয়েন্টের সেঞ্চুরি হলো নিউজিল্যান্ডের। মাত্র ১১ ম্যাচ খেলে দশ জয়ে ১০০ পয়েন্ট হয়ে গেলো তাদের। কিউইদের আগে পয়েন্টের সেঞ্চুরি করা অন্য চার দল হলো বাংলাদেশ (১২০), ইংল্যান্ড (১২৫), আফগানিস্তান (১০০) ও পাকিস্তান (১১০)।

বাংলাদেশ সময়: ১১৩৮ ঘণ্টা, আগস্ট ২০, ২০২২
এআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa