ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ মাঘ ১৪২৯, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, ০৮ রজব ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

চট্টগ্রামে জমজমাট আ.লীগের প্রচারণা

সৈয়দ বাইজিদ ইমন, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২, ২০২২
চট্টগ্রামে জমজমাট আ.লীগের প্রচারণা

চট্টগ্রাম: দুইদিন পর চট্টগ্রামে আসবেন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (৪ ডিসেম্বর) তিনি যোগ দিবেন আওয়ামী লীগের জনসভায়।

 

এই জনসভাকে সামনে রেখে প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন দলীয় নেতাকর্মীরা। প্রতিদিনই চলছে প্রচারণা।

একেকজন একেকভাবে চালাচ্ছেন এই প্রচারণা।  

তেমনই এক ভিন্নধর্মী প্রচারণা দেখা গেল আজ শুক্রবার দুপুরে। ঘড়ির কাঁটা তখন দু’টার ঘরে। নগরের বহদ্দারহাট এলাকায় দেখা মিলল শত মানুষের ভিড়। এই ভিড় একটি নৌকাকে ঘিরে! স্বাভাবিকভাবে নদীর নৌকা সড়কে দেখলে ভিড় হওয়ার কথা। তবে মানুষের কৌতূহল আরও বাড়িয়ে দিয়েছে নৌকাকে সড়কে বীরদর্পে চলতে দেখে। সেই নৌকায় চেপে বসেছেন নেতাকর্মীরা। সেখান থেকে বিতরণ করা হচ্ছিল জনসভায় যোগ দেওয়ার লিফট।  

মূলত আস্ত একটি নৌকা গাড়ির উপর বসিয়ে বানানো হয়েছে এটি। সেই প্রতীকী নৌকার মঞ্চ নিয়ে নেতাকর্মীরা প্রচারণা চালাচ্ছেন পুরো নগরে।

মূলত প্রধানমন্ত্রীর জনসভার মঞ্চও তৈরি করা হচ্ছে নৌকার আদলে। ৩ হাজার ৫২০ বর্গফুটবিশিষ্ট মঞ্চটিতে বসতে পারবেন প্রায় ২০০ জন নেতা। সেই মঞ্চের আকৃতিতে নৌকায় চাকা লাগিয়ে সড়কেই প্রচারণা চালাচ্ছেন 
চট্টগ্রাম অটোরিকশা-অটোটেম্পো শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম খোকন। তিনি নিজেই তৈরি করেছেন এ নৌকার গাড়িটি। খোকন সেই নৌকায় প্রচার-প্রচারণায় চষে বেড়াচ্ছেন চট্টগ্রামের অলিগলি।  

জানতে চাইলে নজরুল ইসলাম খোকন বাংলানিউজকে বলেন, চার বছর আট মাস ১৫ দিন পর চট্টগ্রামের জনসভায় ভাষণ দিবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ৪ ডিসেম্বর নগরের পলোগ্রাউন্ড মাঠের এই জনসভায় লাখো মানুষের সমাবেশ ঘটবে। নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীনের নির্দেশনায় ভিন্নধর্মী এ প্রচারণা করছি। চট্টগ্রামের প্রত্যেক মানুষের কাছে জননেত্রী শেখ হাসিনার জনসভার দাওয়াত পৌঁছে দিবো।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের ৪ ডিসেম্বরে জনসমাবেশ সফল করার জন্য চারদিকেই প্রচারণা চলছে। সারাদিন ট্রাকে করে প্রচারণা ও লিফলেট বিতরণ করছেন নেতাকর্মীরা। অনেকেই অলিগলিতে প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় আসার জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন। আমাদের প্রতিটি থানা, ওয়ার্ড ও ইউনিট পর্যায়ে সভা হচ্ছে। প্রতিদিন আমাদের নির্দিষ্ট ২৪ স্থানে ও সিএনজি অটোরিকশা নিয়ে মাইকিং হচ্ছে। আমাদের ৪৪টি সাংগঠনিক ওয়ার্ডে আগামী ১, ২ ও ৩ ডিসেম্বর একযোগে মাইকিং ও প্রচারণা করা হবে।

জনসভা সফল করতে দিন-রাত নগর থেকে উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন দলীয় নেতাকর্মীরা। ২০১২ সালের ২৮ মার্চ পলোগ্রাউন্ড মাঠে সর্বশেষ জনসভায় বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দীর্ঘ ১০ বছর পর এই মাঠে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নৌকার আদলে বিশাল মঞ্চ তৈরি করা হচ্ছে। ১৫ নভেম্বর থেকে মঞ্চ তৈরির কাজ শুরু হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২, ২০২২ 
বিই/পিডি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa