ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ মাঘ ১৪২৮, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

চবি ভর্তি: শিক্ষার্থীদের বিষয় নির্বাচনেও ভোগান্তি!

মোহাম্মদ আজহার, ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২০৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০২১
চবি ভর্তি: শিক্ষার্থীদের বিষয় নির্বাচনেও ভোগান্তি! ফাইল ছবি

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ২০২০-২১ সেশনের ভর্তি পরীক্ষায় সব ইউনিটের ফলাফল সময়মতো প্রকাশ করলেও ডি-ইউনিটের ফলাফল ঘোষণায় দেরি হওয়ার বিষয়টি ছিল আলোচনায়। ডি-১ উপ-ইউনিটে পরীক্ষা না দিয়ে পাস করার মতো ঘটনাও ঘটেছে এবার।

  

পরীক্ষা শেষ হওয়ার ২২ দিন পর বিষয় নির্বাচনের (সাবজেক্ট চয়েস) নোটিশ দিলেও এখনো বিষয় নির্বাচন ফরম পূরণ করতে পারছেন না ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা।  

গত ২৪ নভেম্বর চবির একাডেমিক শাখার ডেপুটি রেজিস্ট্রার ও ভর্তি কমিটির সচিব এসএম আকবর হোছাইন স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে ২৮ নভেম্বর থেকে বিষয় নির্বাচন ফরম পূরণের তারিখ ঘোষণা করা হয়।  

যাতে বলা হয়, সাধারণ আসনের জন্য এ, বি, সি ও ডি-ইউনিটে ২৮ নভেম্বর থেকে ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত এবং বি-১ ও ডি-১ উপ-ইউনিটে আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত বিভাগ/ইনস্টিটিউট নির্বাচন ফরম পূরণ করতে পারবে।  

রোববার (২৮ নভেম্বর) সকাল থেকে বিষয় নির্বাচন ফরম পূরণ করতে গিয়ে ভোগান্তির শিকার হয়েছেন শিক্ষার্থীরা। চবির বিভিন্ন ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ একাধিক শিক্ষার্থী বাংলানিউজকে বিষয়টি জানিয়েছেন।

ডি ইউনিটে উত্তীর্ণ সাইমুন মজুমদার বাংলানিউজকে বলেন, আজ সন্ধ্যার পরে বিষয় নির্বাচন ফরম পূরণ করতে গিয়ে দেখলাম কিছুই আসে না। অথচ ২৮ তারিখ সকাল থেকেই বিষয় নির্বাচন করার কথা।

মোহাম্মদ সাব্বির বাংলানিউজকে বলেন, আমি বি এবং ডি-ইউনিটে উত্তীর্ণ হয়েছি। সকাল থেকে কয়েকবার কম্পিউটার দোকানে বিষয় নির্বাচন ফরম পূরণের চেষ্টা করেছি। কিন্ত এখনো পারিনি।  

জানা যায়, সর্বশেষ ২০১৯-২০ সেশনের ভর্তি পরীক্ষা শেষ হয় ৩১ অক্টোবর। চার দিন পরই ৪ নভেম্বর বিষয় নির্বাচনের তারিখ দেওয়া হয়েছিল। তবে এবার গত ৫ নভেম্বর ভর্তি পরীক্ষা শেষ হলেও ২২ দিন পর দেওয়া হয় বিষয় নির্বাচনের তারিখ। এরপরও নিজেদের ঘোষণা করা তারিখে যথাসময়ে বিষয় নির্বাচন প্রক্রিয়া সচল করতে পারেনি চবি কর্তৃপক্ষ। বিশ্ববিদ্যালয় সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ফলাফল দিতে দেরি হওয়ায় সমগ্র ভর্তি প্রক্রিয়ায় দেরি হচ্ছে।

জানতে চাইলে চবির ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এসএম মনিরুল হাসান বাংলানিউজকে বলেন, এখনো ৬ দিন সময় আছে। শিক্ষার্থীরা এর মধ্যে সাবজেক্ট চয়েস দিতে পারবেন। আইসিটি সেলের সঙ্গে কথা হয়েছে। কারিগরি কোনো জটিলতা নেই। খুব দ্রুত বিষয়টি সমাধান করা হচ্ছে। আশা করছি শিগগির সাবজেক্ট চয়েস দেওয়া যাবে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৩০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০২১ 
এমএ/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa