ঢাকা, শনিবার, ১৪ মাঘ ১৪২৮, ২৯ জানুয়ারি ২০২২, ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

আ.লীগ ও সহযোগী সংগঠনের ২২ নেতাকে বহিষ্কারের সুপারিশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯৫৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৯, ২০২১
আ.লীগ ও সহযোগী সংগঠনের ২২ নেতাকে বহিষ্কারের সুপারিশ ...

চট্টগ্রাম: ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে কিংবা দলীয় প্রার্থী বিরোধী প্রচারণায় যুক্ত থাকায় আ.লীগ ও সহযোগী সংগঠনের  ২২ নেতাকে বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়েছে।

বুধবার (৮ ডিসেম্বর) রাতে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করার অভিযোগে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের আওতাধীন তিন উপজেলার আওয়ামী লীগ ও  সহযোগী সংগঠনের এই ২২ নেতাকে বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কাছে।

যাদের বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়েছে, তারা হলেন: পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মো. নুর উর রশিদ এজাজ ও সদস্য মো.জাকারিয়া ডালিম, আশিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি মুহাম্মদ বেলাল উদ্দিন চৌধুরী ও সদস্য সৈয়দ মাঈনুল হক, কেলিশহর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি নিখিল দে, জঙ্গলখাইন ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি শাহাদাত হোসেন সবুজ, উপজেলা যুবলীগ নেতা মুহাম্মদ দিদারুল আলম, হাইদগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ যুগ্ম আহ্বায়ক বি এম জসিম, ধলঘাট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ অর্থ সম্পাদক শফিউল আলম বাদশা, জিরি ইউনিয়নে বর্তমান চেয়াম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা আবুল কালাম সওদাগর ভোলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতা আবুল কালাম বাবুল, কোলাগাঁও ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি মাহবুবুল হক, ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সাবেক আহ্বায়ক আবুল কাশেম রাসেল, ছনহরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা কাজী জাফর।  

লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আনিছ উল্লাহ, চরম্বা ইউনিয়ন তাঁতী লীগের সভাপতি মুহাম্মদ হেলাল উদ্দিন, লোহাগাড়া উপজেলা মৎস্যজীবী লীগের সহ-সভাপতি আকতার কামাল পারভেজ, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক নেতা মোহাম্মদ এয়াছিন।  

কর্ণফুলী উপজেলার জুলধা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান চেয়ারম্যান রফিক আহম্মদ ও কর্ণফুলী উপজেলা যুবলীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ মুছা, কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মোহাম্মদ আলী, কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও বর্তমান চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম।

এ বিষয়ে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ এমপি বাংলানিউজকে বলেন, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে যারা নির্বাচন করছেন তাদেরকে কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের আলোকে বহিষ্কার ও চূড়ান্ত বহিষ্কারের জন্য কেন্দ্রে সুপারিশ পাঠানো হয়েছে। এছাড়া বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে অর্থাৎ নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে যে সকল নেতা কাজ করছেন বা প্রচার-প্রচারণায় অংশগ্রহণ করছেন, তাদের বিরুদ্ধেও সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এর আগে পটিয়া, লোহাগাড়া ও কর্ণফুলী উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে দলীয় বিদ্রোহী প্রার্থীদের বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত হয় চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভায়।  

বুধবার (৮ ডিসেম্বর) বিকেলে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভা আন্দরকিল্লা কার্যালয়ে সংগঠনের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ এমপি’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় বক্তব্য দেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, সহ-সভাপতি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুলী, মোহাম্মদ ইদ্রিস, অ্যাডভোকেট এ কে এম সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী,  আবু সাঈদ চৌধরী, আইন সম্পাদক অ্যাডভোকেট মির্জা কছির উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট  জহির উদ্দিন, দপ্তর সম্পাদক আবু জাফর, শ্রম সম্পাদক খোরশেদ আলম, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট কামরুন নাহার, উপ-দপ্তর সম্পাদক বিজয় কুমার বড়ুয়া, লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি খোরশেদ আলম চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন হিরু।

বাংলাদেশ সময়: ০৯৫০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৯, ২০২১
এমআই/এসি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa