ঢাকা, বুধবার, ২৫ মাঘ ১৪২৯, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৬ রজব ১৪৪৪

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

ত্রিপুরায় ৩০ হাজার হেক্টর জমিতে হবে রাবার বাগান

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫২০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৭, ২০২২
ত্রিপুরায় ৩০ হাজার হেক্টর জমিতে হবে রাবার বাগান

আগরতলা (ত্রিপুরা): সারা ভারতে প্রতি বছর গড়ে সাড়ে ১২ লাখ টন প্রাকৃতিক রাবারের চাহিদা রয়েছে। এর মধ্যে দেশের অভ্যন্তরে উৎপাদন হয় সাড়ে ৭ লাখ টন, বাকি রাবার বিদেশ থেকে আমদানি করতে হয়।

তবে দেশে প্রাকৃতিক রাবারের উৎপাদন বৃদ্ধির দিকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে রাবার বোর্ড অফ ইন্ডিয়া।  

বুধবার (৭ ডিসেম্বর) আগরতলায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ সব বলেন, রাবার বোর্ড অফ ইন্ডিয়ার চেয়ারম্যান ড. শাওয়ার ধননীয়া।
 
তিনি আরও বলেন, উত্তর-পূর্ব ভারতে প্রায় ২ লাখ টন রাবার উৎপাদিত হচ্ছে। এর মধ্যে ত্রিপুরাতেই বছরে প্রায় ১ লাখ টন প্রাকৃতিক রাবার উৎপাদিত হচ্ছে। ত্রিপুরা রাজ্যে ছোট-বড় মিলে প্রায় ১ লাখ চাষি রাবার চাষ করছেন। তাদের সঙ্গে আরও এক লাখ শ্রমিক রাবার চাষের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। আজ থেকে চল্লিশ বছর আগে মাত্র ১০০ হেক্টর রাবার বাগান দিয়ে ত্রিপুরায় চাষ শুরু হয়, তা এখন বেড়ে এক লাখ হেক্টরের বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। রাজ্যের সবচেয়ে বেশি রাবার চাষ হচ্ছে সিপাহীজলা জেলায়। এই জেলায় প্রায় ৪০ হাজার হেক্টর জমিতে বর্তমানে রাবার বাগান রয়েছে।  

উত্তর-পূর্ব ভারতের অন্যান্য রাজ্যগুলিতে রাবারের উৎপাদন বৃদ্ধি করার জন্য তারা কাজ করছেন বলেও জানান। খুব দ্রুত যাতে উত্তর-পূর্ব ভারতে নতুন দুই লাখ হেক্টর জমিতে রাবার বাগান গড়ে তোলা যায় তার জন্য কাজ করা হচ্ছে। ত্রিপুরার পাশাপাশি আসাম মিজোরাম অরুণাচল প্রদেশ ইত্যাদি রাজ্যে জমি চিহ্নিত করে রাখা হয়েছে নতুন বাগান গড়ে তোলার জন্য। শুধুমাত্র ত্রিপুরায় নতুন করে আরও ৩০ হাজার হেক্টর জমিতে রাবার গাছ লাগানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।  

আগামী ৩ বছরের মধ্যে এই লক্ষ্যমাত্রা পূরণের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এক একটি রাবার গাছ থেকে প্রায় ৩০ বছর পর্যন্ত রাবার উৎপাদিত হয়। এরপর এই গাছগুলি কেটে কাঠ দিয়ে আসবাবপত্র তৈরি করার মধ্য দিয়ে চাষিরা যাতে আর্থিকভাবে লাভবান হতে পারেন তার জন্য আসবাবপত্র তৈরীর নতুন নতুন শিল্প কারখানা গড়ে তোলার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

এদিন আগরতলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের আগে তিনি ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. মানিক সাহার সঙ্গে বৈঠক করেন। এই বৈঠকে ত্রিপুরা রাজ্যের শিল্পের উন্নয়নের বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। তখন মুখ্যমন্ত্রীর কাছে রাবার শিল্পের উন্নয়নের জন্য রাজ্য সরকারের তরফে ৫০০ কোটি রুপির অনুদান চেয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী এই অনুদান দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন বলেও জানান তিনি।  

বাংলাদেশ সময়: ১৩১৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৭, ২০২২
এসএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa