ঢাকা, শনিবার, ৭ কার্তিক ১৪২৮, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

তৃতীয় দফায় ভোটগ্রহণকালে গ্রেপ্তার ১০৭

৩৯ বুথে পুনর্নির্বাচনের দাবি সিপিএমের, যাদবপুরে ব্যাপক রিগিংয়ের অভিযোগ তৃণমূলের

রক্তিম দাশ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৪৫০ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৮, ২০১১
৩৯ বুথে পুনর্নির্বাচনের দাবি সিপিএমের, যাদবপুরে ব্যাপক রিগিংয়ের অভিযোগ তৃণমূলের

কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের তৃতীয় দফায় ভোটগ্রহণকালে বুধবার শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে ১০৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

রাতে সংবাদ সম্মেলন ডেকে সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক বিমান বসু বলেছেন, ‘আমরা ইসির কাছে উত্তর ২৪ পরগনার বীজপুরের ২১টি বুথে ও হাড়োয়ার ১৮টি বুথে পুনর্নির্বাচনের দাবি জানিয়েছি।

এসব বুথ তৃণমূল দখল করে নিয়েছিল। তবুও জয়ের পাল্লা আমাদের দিকেই ঝুঁকে আছে। ’

অপরদিকে তৃনমূলনেত্রী মমতা ব্যানার্জি যাদবপুরে মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের কেন্দ্রে ব্যাপক রিগিংয়ের অভিযোগ তুলেছেন।

তিনি বলেছেন, ‘এখানকার ১০১, ১০২ ও ১১০ নম্বর ওয়ার্ডে রিগিং করেছে সিপিএম। তবুও আমরাই জিতেছি। ’

এদিকে নির্বাচন শেষ হওয়ার পর যাদবপুরে অশান্তি শুরু হয়েছে।

তৃণমূল অভিযোগ করেছে, ভোট শেষ হওয়ার পর তাদের এক পোলিং এজেন্ট ও কর্মীকে মারধোর করা হয়েছে।

এর প্রতিবাদে রাত সাড়ে ১০টায় গাঙ্গুলিবাগানে রাজা সুবোধ মল্লিক রোড অবরোধ করে তৃনমূলকর্মীরা। বিশ মিনিট ধরে ওই অবরোধ চলে। ঘটনাস্থলে আসে বিশাল কেন্দ্রীয় বাহিনী।

অবশ্য সিপিএমের পাল্টা অভিযোগ, তাদের এক কর্মীর মাকে ভোট দিতে যাওয়ার সময় কটূক্তি করে তৃণমূলকর্মীরা।

এলাকায় এখনও উত্তেজনা আছে। অশান্তির আশঙ্কায় কেন্দ্রীয় বাহিনী ও পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

তৃতীয় দফার নির্বাচনে তিনটি জেলায় কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগনা ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার ৭৫টি বুথে নির্ধারিত সময়ের পরেও বেশ কিছু ভোট পড়েছে।

ইসি জানিয়েছে, ৭৮ দশমিক ৩১ শতাংশ ভোট পড়েছে তৃতীয় দফায়।

উত্তর কলকাতায় ৭৯ দশমিক ৩১ শতাংশ, দক্ষিণ কলকাতায় ৬৩ দশমিক ০৫ শতাংশ, উত্তর ২৪ পরগনায় ৮০ দশমিক ৭০ শতাংশ ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৮২ দশমিক ৬০ শতাংশ ভোট পড়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৪৪১ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৮, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa