ঢাকা, সোমবার, ১৬ মাঘ ১৪২৯, ৩০ জানুয়ারি ২০২৩, ০৭ রজব ১৪৪৪

অর্থনীতি-ব্যবসা

বিমা মেলায় সাড়া ছিল না গ্রাহকদের

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২২২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৭
বিমা মেলায় সাড়া ছিল না গ্রাহকদের অধিকাংশ স্টলই ছিল গ্রাহক-দর্শনার্থী, এমনকি কর্মীশূন্য। ছবি: বাংলানিউজ

সিলেট থেকে:  স্টল আছে, স্টলে কিছু বিমাকর্মী ও কর্মকর্তাও আছেন, কেবল নেই গ্রাহকের উপস্থিতি। রাজধানী ঢাকার পর সিলেটে দেশের দ্বিতীয়বারের মতো আয়োজিত দু’দিনব্যাপী বিমা মেলা এভাবেই শেষ হয়েছে।

সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার জিমনেসিয়াম মিলনায়তনে শুক্রবার (২২ ডিসেম্বর) শুরু হওয়া বিমা মেলা শেষ হয়েছে শনিবার (২৩ ডিসেম্বর)।    

বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) ব্যাপক প্রচার-প্রচারণার পরেও এ খাতের ৭৮টি বিমা কোম্পানির মধ্যে মাত্র ৩২টি স্টল নেয়।

লাইফ ও ননলাইফ ইন্স্যুরেন্স- দুই ধরনের কোম্পানির স্টলগুলোতে গিয়ে দেখা গেছে, বেশিরভাগ স্টলে কোনো দর্শনার্থী ও বিমাকর্মী নেই। হাতেগোনা কয়েকটি স্টলে কিছু বিমা কর্মকর্তা ও কর্মীদের দেখা গেলেও বাইরের কোনো গ্রাহক বা দর্শক ছিলেন না।

‘ইনজয়’ করে অলস সময় কাটিয়েছেন স্টলকর্মীরা।  ছবি: বাংলানিউজঅথচ মেলা শুরুর আগেই কর্মসূচি জানিয়ে সিলেট ও ঢাকায় সংবাদ সম্মেলন করেছে আইডিআরএ।

মেলার স্টলে একা বসে থাকা পিপলস্‌ ইন্স্যুরেন্সের আইটি বিভাগের সহকারী ম্যানেজার মঞ্জুরুল করিম বলেন, দুই দিনেও কোনো পলিসি বিক্রি হয়নি।

‘মেলায় কোনো গ্রাহকের দেখা পেয়েছেন কি-না’- জানতে চাইলে অনেকক্ষণ চিন্তা করে বলেন, ‘কিছু গ্রাহক এসেছেন, তাদের পলিসি বিষয়ক কিছু তথ্য দিয়েছি’।

রিলায়েন্স ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির কর্মকর্তা জানান, তাদেরও কোনো পলিসি বিক্রি হয়নি।

‘মেলায় এসে কি লাভ হয়েছে?’ জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমাদের কোম্পানি স্টল নিয়েছে, তাই মেলায় এসেছি। সবার সঙ্গে দেখা হয়েছে, ইনজয় করেছি’।

মেলা আয়োজক কমিটির সদস্য পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক বি এম ইউসুফ আলী বলেন, দেশের অন্য এলাকার চেয়ে সিলেট অঞ্চলের মানুষের বিমা নিয়ে আগ্রহ কম থাকায় উপস্থিতিও কম ছিলো।
 
মেলা শুরু হয় শুক্রবার সকাল ৯টায় কোর্ট এলাকা থেকে গণর্যালির মাধ্যমে। দুপুর পৌনে ১টায় নগরের কবি নজরুল অডিটোরিয়ামে মেলার উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স ফোরাম এবং বিমা সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান মেলা আয়োজনে সহযোগিতা করেছে।

দু’দিনেও কোনো বিমা পলিসি বিক্রি হয়নি বলে জানিয়েছেন বিমা কোম্পানিগুলোর কর্মকর্তারা।  ছবি: বাংলানিউজএবারের মেলায় ৮৫ লাখ ৫৫ হাজার ৬২০ টাকার টাকার বিমা দাবির চেক হস্তান্তর করা হয়েছে।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৮১৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৭
এমএফআই/এএসআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa