ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮ শাবান ১৪৪৫

ফুটবল

রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে মুখোমুখি বার্সা-জুভেন্টাস

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮১৪ ঘণ্টা, নভেম্বর ২২, ২০১৭
রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে মুখোমুখি বার্সা-জুভেন্টাস ছবি: সংগৃহীত

লা লিগা ও চ্যাম্পিয়নস লিগে অপরাজেয় বার্সেলোনার সামনে এবার জুভেন্টাসের মাঠ জয়ের চ্যালেঞ্জ। ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের আসরে হাইভোল্টেজ ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে দু’দল।

লা লিগায় ১২ ম্যাচ (১১ জয় ও ১ ড্র) শেষে এখনো হারের স্বাদ পায়নি বার্সা। চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্বেও (৩ জয় ও ১ ড্র) সেই ধারা অব্যাহত রেখেছে কাতালানরা।

আর দু’টি ম্যাচ বাকি। ১ পয়েন্ট পেলেই নকআউট পর্ব নিশ্চিত।

জুভিদের মাঠে হার এড়ালেই শেষ ষোলোতে পা রাখবে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। বিপরীতে ঘরের মাঠে জয় ভিন্ন কিছু ভাবছে না ইতালিয়ান পরাশক্তিরা। প্রতিশোধের লক্ষ্য তো আছেই। গত সেপ্টেম্বরে ন্যু ক্যাম্পে গ্রুপ পর্বের প্রথম দেখায় ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছিল গত মৌসুমে বার্সাকে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বিদায় করা জুভেন্টাস।

ছন্দে থাকা বার্সার সামনে দুশ্চিন্তার কারণ অ্যাওয়ে গোল। এবারের আসরে এখনো প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠাতে পারেনি আর্নেস্টো ভালভার্ডের শিষ্যরা। স্পোর্টিং লিসবনে গিয়ে আত্মঘাতী গোলের সুবাদে ১-০ ব্যবধানের জয় এসেছিল। গ্রিসে অলিম্পিয়াকোসের বিপক্ষে সবশেষ ম্যাচটি গোলশূন্য ড্রয়ে নিষ্পত্তি হয়।

তাই বার্সাকে কঠিন পরীক্ষাই দিতে হবে জুভিদের শক্ত ডিফেন্সের সামনে। হোম ভেন্যুতে জিয়ানলুইজি বুফনকে ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো পরাস্ত করা লিওনেল মেসি তুরিনে লক্ষ্যভেদ করতে পারবেন তো? সব মিলিয়ে রোমাঞ্চকর এক ম্যাচই উপভোগ করবেন দর্শকরা।

বুধবার (২২ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত পৌনে ২টায় খেলা শুরু হবে। একই সময়ে অলিম্পিয়াকোসকে আতিথ্য দেবে পর্তুগালের স্পোর্টিং লিসবন। ‘ডি’ গ্রুপে ৪ ম্যাচ শেষে ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থাকা বার্সার চেয়ে ৩ পয়েন্ট পিছিয়ে জুভেন্টাস। লিসবন ৪ ও ১ পয়েন্ট নিয়ে তলানিতে গ্রিক ক্লাবটি।

এদিকে একই সময়ে চেলসি, পিএসজি, বায়ার্ন মিউনিখ, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের মতো ইউরোপিয়ান পাওয়ারহাউসরা মাঠে নামছে। তবে সব ছাপিয়ে সবার দৃষ্টি থাকবে জুভেন্টাস-বার্সা ম্যাচে। অ্যাতলেতিকো-রোমা ম্যাচটিও হবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ।

আজারবাইজানের কারাবাগের মাঠে নামবে ইংলিশ চ্যাম্পিয়ন চেলসি। বায়ার্নকে আতিথ্য দেবে বেলজিয়ান ক্লাব আন্ডারলেখট। সুইজারল্যান্ডের বাসেলে পা রাখবে ম্যানইউ। প্যারিসে আতিথ্য নেবে স্কটিশ ক্লাব সেল্টিক।

‘এ’ গ্রুপ থেকে একটি পয়েন্টই হোসে মরিনহোর ম্যানইউকে নকআউট রাউন্ডে তুলে দেবে। ৪ ম্যাচ শেষে শতভাগ জয় রেড ডেভিলসদের। সমান ৬ পয়েন্ট বাসেল ও সিএসকেএ মস্কোর। এক ম্যাচও জেতেনি বেনফিকা।

‘বি’ গ্রুপের দুই ফেভারিট পিএসজি ও বায়ার্ন ইতোমধ্যে শেষ ষোলো নিশ্চিত করেছে। টানা চার ম্যাচ জিতে উড়ছে ফ্রেঞ্চ জায়ান্টরা। পিএসজির কাছে হারলেও অন্য তিন ম্যাচে পূর্ণ পয়েন্ট আদায় করেছে জার্মান চ্যাম্পিয়নরা।

‘সি’ গ্রুপের সমীকরণটা জটিল। শীর্ষে থাকা রোমার সংগ্রহ ৮। ১ পয়েন্ট পিছিয়ে চেলসি। মাত্র ৩ পয়েন্ট নিয়ে হুমকির মুখে থাকা অ্যাতলেতিকোকে টিকে থাকতে হলে জয়ের বিকল্প নেই। কারাবাগের পয়েন্ট ২। গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে আবার স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে অ্যাতলেতিকোর অগ্নিপরীক্ষা। কারাবাগকে স্বাগত জানাবে সুবিধাজনক অবস্থানে থাকা ইতালির রোমা।

বাংলাদেশ সময়: ১৪১৩ ঘণ্টা, ২২ নভেম্বর, ২০১৭
এমআরএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।