ঢাকা, রবিবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৯ মে ২০২৪, ১০ জিলকদ ১৪৪৫

ফুটবল

২২ মিনিটে ৬ গোল, ড্রয়ে শেষ বসুন্ধরা কিংস-শেখ জামাল ম্যাচ

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৩৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ৭, ২০২২
২২ মিনিটে ৬ গোল, ড্রয়ে শেষ বসুন্ধরা কিংস-শেখ জামাল ম্যাচ ছবি: শোয়েব মিথুন

প্রথমার্ধ কাটলো উত্তাপহীন। দ্বিতীয়ার্ধও সেদিকেই এগোচ্ছিল।

কিন্তু মাত্র ৭১তম মিনিট থেকে বদলে যেতে শুরু করল ম্যাচের চিত্র। মাত্র ২২ মিনিটের মধ্যেই ৬ গোলের ঝড়ে শেষ পর্যন্ত ড্রয়ে শেষ হলো বসুন্ধরা কিংস ও শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের মধ্যকার ম্যাচটি।

বসুন্ধরা কিংস অ্যারেনায় বৃহস্পতিবার ম্যাচটি ৩-৩ ড্র হয়েছে। শেখ জামালের হয়ে তিন গোল করেছেন ভালিজনভ ওতাবেক, সুলাইমান সিল্লাহ ও সলোমন কিং। বসুন্ধরা কিংসের হয়ে জোড়া গোল করেছেনএলিটা কিংসলে; বাকি গোল স্তইয়ান ভ্রানিয়াসের।

নিজেদের শেষ ম্যাচে আবাহনীর সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করেছিল বসুন্ধরা কিংস। এছাড়া বসুন্ধরা কিংস অ্যারেনায় টানা ছয় ম্যাচ জয়ের পর প্রথম ড্র করল কিংস।

শুরুর ৪৫ মিনিটে দুই দলই তেমন আক্রমণ করতে পারেনি। অগোছালো ফুটবল খেলে গোলের সুযোগ তৈরি করতে পারেনি কেউই। তবে দ্বিতীয়ার্ধে রোমাঞ্চ ছড়িয়েছে। একবার জামাল এগিয়ে যায় তো আবার কিংস ফিরে আসে।

২৩তম মিনিটে ভাল সুযোগ পেয়েছিল জামাল। খালেদ শাফির ভুল পাসে বল পেয়ে যান সলোমন কিং, নিজেদের অর্ধ থেকে বল বাড়িয়ে দিলে অফ সাইড ফাঁদ ভেঙে কিংসের রক্ষণে ঢুকে পড়েন ওতাবেক। কিংসের কোনও ডিফেন্ডার না থাকায় পোস্ট ছেড়ে বক্সের বাইরে এসে ওতাবেকের আক্রমণ নষ্ট করেন দেন আনিসুর রহমান জিকো।  

২৭তম মিনিটে বক্সের ডান দিক থেকে সোলেমান সিল্লাহর গতির শট দুরের পোস্ট ঘেঁষে বাইরে চলে যায়। ৫১তম মিনিটে গোললাইন ক্লিয়ারেন্স জামালকে রক্ষা করেন রায়হান হাসান। রোবিনহোর ফ্রি কিক দুরের পোস্ট থেকে খালেদ শাফির কাট ব্যাক ছয় গজ বক্স থেকে ভ্রানিয়েসের শট গোললাইন থেকে ফিরিয়ে দেন রায়হান।  

৬২তম মিনিটে ইব্রাহিমের ক্রসে ভ্রানিয়েস মাথা লাগালেও তা লক্ষ্যে রাখতে পারেনি। ৬৭ মিনিটে বাঁ দিকের লাইন ধরে বক্সে ঢুকে পড়েন সোলাইমান সিল্লাহ। টাচ লাইন থেকে কাট ব্যাক করেছিলেন এই গাম্বিয়ান কিন্তু তার বাড়ানো বল নেওয়ার মত ছিলনা কেউ।

অবশেষে ৭১তম মিনিটে ডেড লক ভাঙে জামাল। ওতাবেকের গোলে এগিয়ে যায়। তিন ডিফেন্ডারকে পিছনে ফেলে দারুণ ভাবে নিয়ন্ত্রণ নিয়ে বক্সে ঢুকে পড়েন ওতাবেক। পোস্ট ছেড়ে জিকো সামনে এগিয়ে আসায় আগেই ভাগেই বাম পায়ের প্লেসিং শটে লক্ষ্যভেদ করেন উজবেকিস্তানের এই ফরোয়ার্ড।  

পাঁচ মিনিট বাদেই ভ্রানিয়েসের গোলে সমতায় ফেরে কিংস। প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে মানব দেওয়ালের উপর দিয়ে কাছের পোস্টে লক্ষ্যভেদ করেন এই বসনিয়ান ফুটবলার। বলের দিকে ঝাঁপিয়েও নাগাল পাননি মিতুল মারমা। চলতি লিগে ভ্রানিয়েসের এটি দ্বিতীয় গোল। ৮৩মিনিটে আনিসুর রহমান জিকো বড় ভুল করে বসেন, তার ভুলে ব্যবধান বাড়ায় জামাল। ওতাবেকের কাট ব্যাক থেকে ফয়সাল আহমেদ গোলের উদ্দেশ্যে শট নিলে জিকো ধরতে না পারায় বল চলে যায় সিল্লাহর পায়ে, গোল মুখ থেকে কোনও ভুল করেননি গাম্বিয়ান এই ফরোয়ার্ড।

৮৫তম মিনিটে ব্যবধান ৩-১ করে ফেলে জামাল। বক্সের বাইরে থেকে নিচু করে নেওয়া গতির শটে জাল খুঁজে নেন সোলেমান কিং। দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে গোল খাওয়া দেখেছেন আনিসুর রহমান জিকো। ৮৯ মিনিটে ৩-২ করে ফেলে কিংস। সুফিলের ক্রসে হেডে গোল করেন এলিটা কিংসলে। যোগ করা এক মিনিটের মাথায় আবারও গোল করেন এলিটা কিংসলে। ইব্রাহিমের ক্রসে কিংসলের মাথা ছুঁয়ে বল জালে জড়ায়।

এই নিয়ে ১১ ম্যাচে ২৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই রইলো বসুন্ধরা কিংস। ২১ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে নেমে গেল শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাব। দিনের অন্য ম্যাচে উত্তর বারিধারাকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দেওয়া আবাহনী ২২ পয়েন্ট নিয়ে উঠে এলো দ্বিতীয় স্থানে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৭, ২০২২
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।