ঢাকা, সোমবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ভারত

ত্রিপুরার দূষিত পানি বাংলাদেশে প্রবাহ বন্ধের বিষয়ে বৈঠক

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯২১ ঘণ্টা, আগস্ট ২০, ২০২২
ত্রিপুরার দূষিত পানি বাংলাদেশে প্রবাহ বন্ধের বিষয়ে বৈঠক

আগরতলা (ত্রিপুরা): আখাউড়া সীমান্তের খাল দিয়ে ত্রিপুরার দূষিত পানি বাংলাদেশে প্রবাহ বন্ধ করার বিষয়ে আগরতলার মেয়র দীপক মজুমদারের সঙ্গে বৈঠক করেছেন বাংলাদেশের সহকারী হাইকমিশনার।

ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানী আগরতলা শহরের বর্জ্য এবং কারখানার দূষিত পানি আখাউড়া সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে প্রবাহিত হয়।

এই দূষিত পানি বাংলাদেশে প্রবাহের আগে তা পরিশোধন করার বিষয়ে ত্রিপুরা সরকারের পক্ষ থেকে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয় বাংলাদেশকে। দূষিত পানিকে পরিশোধন করতে আখাউড়া সীমান্ত সংলগ্ন এলাকায় ভারতীয় ভূখণ্ডে প্ল্যান্ট নির্মাণের কাজ চলছে।

পরিশোধনাগারের নির্মাণকাজ কতদূর অগ্রসর হয়েছে তা জানতে শনিবার (২০ অগস্ট) আগরতলার মেয়রের সঙ্গে বৈঠক করেন আগরতলাস্থ বাংলাদেশের সহকারী হাইকমিশনার আরিফ মোহাম্মদ। মেয়রের কার্যালয়ে গিয়ে তিনি এ বিষয়ে কথা বলেন। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি মেয়র মনিকা দাস দত্ত, পুরো কমিশনার ডা. শৈলেশ কুমার যাদবসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা।

দীর্ঘ বৈঠক শেষে সহকারী হাইকমিশনার আরিফ মোহাম্মদ বাংলানিউজকে বলেন, আগরতলা থেকে আখাউড়া সীমান্তের খাল দিয়ে শহরের আবর্জনা এবং কারখানার আবর্জনা মিশ্রিত কালো দূষিত পানি বাংলাদেশে প্রবাহিত হচ্ছে। এর ফলে আখাউড়া সীমান্ত সংলগ্ন বাংলাদেশ এলাকার স্থানীয়দের সমস্যা হচ্ছে। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ভারত সরকারকে এ বিষয়ে অবগত করা হয়েছিল। তখন ভারত সরকারের পক্ষ থেকে আখাউড়ায় ছোট আকারের একটি প্ল্যান্ট বসানো হয়েছিল। কিন্তু প্ল্যান্টের প্রক্রিয়াকরণ ক্ষমতা অত্যন্ত কম হওয়ায় কোনো কাজে আসছে না। তাই এখনো বাংলাদেশের অংশে আগরতলার দূষিত পানি প্রবাহিত হচ্ছে। পরবর্তী সময় বাংলাদেশের তরফে বিষয়টি আবার অবগত করা হয় ভারতকে। এখন নতুন করে আরও একটি বড় আকারের প্ল্যান্ট স্থাপন করা হচ্ছে আখাউড়া সীমান্ত সংলগ্ন এলাকার ভারতীয় অংশে।

প্ল্যান্টের কাজের অগ্রগতির বিষয়ে জানতে বাংলাদেশের সহকারী হাইকমিশনার আরিফ মোহাম্মদ আগরতলার মেয়রের সঙ্গে কথা বলেছেন। কবে নাগাদ প্ল্যান্টের কাজ শেষ হবে, তারও খোঁজ খবর নিয়েছেন। মেয়র তাকে জানিয়েছেন, আগামী বছরের মাঝামাঝি সময়ে নির্মাণকাজ শেষ হবে এবং তখন থেকে খালের পানি পরিশোধন করে বাংলাদেশে পাঠানো হবে।

বৈঠক শেষে আগরতলার মেয়র সহকারী হাইকমিশনার নিয়ে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে শহীদ ভারতীয় সেনা আলবার্ট এক্কাসহ অন্যান্য ভারতীয় শহীদ সেনার স্মৃতিতে আগরতলায় নির্মিত পার্ক ঘুরে দেখেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৬ ঘণ্টা, আগস্ট ২০, ২০২২
এসসিএন/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa