ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ চৈত্র ১৪৩০, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ০২ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

ভারতীয় ভিসার জন্য ভিএএফসি উদ্বোধন

ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৬, ২০২৩
ভারতীয় ভিসার জন্য ভিএএফসি উদ্বোধন

ঢাকা: ভারতের ৭৪তম প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশে একটি ভারতীয় ভিসা অ্যাপ্লিকেশন ফ্যাসিলিটেশন সেন্টার (ভিএএফসি) উদ্বোধন করা হয়েছে। ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্র (আইভ্যাক) ঢাকার যমুনা ফিউচার পার্কে এই সেন্টার হবে।

ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন জানায়, কেন্দ্রটি অনলাইনে ভিসা আবেদন ফর্ম পূরণ করার সুবিধা দেবে।  

বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) একটি অনুষ্ঠানে ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার প্রণয় ভার্মা এই ভিসা অ্যাপ্লিকেশন ফ্যাসিলিটেশন সেন্টারটি উদ্বোধন করেন।

ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন আরও জানায়, অনলাইন ভিসা আবেদন বাধ্যতামূলক হওয়ার পর থেকেই এই ধরনের একটি ভিসা অ্যাপ্লিকেশন ফ্যাসিলিটেশন সেন্টার স্থাপন করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে, যেখানে কম্পিউটার বা ইন্টারনেট সংযোগ সুবিধা নেই এমন আবেদনকারীরা তাদের পাসপোর্ট/নথিপত্র নিয়ে ভিএএফসি-তে আসতে পারবেন।  অনলাইন ভিসার সুবিধা গ্রহণপূর্বক আবেদনপত্র পূরণ করে সেটা প্রিন্ট করাতে পারবেন। এখন পর্যন্ত  যে সব সাধারণ জনগণ নিজে নিজে ভিসা আবেদন ফর্ম পূরণ করতে পারেন না, তারা এজেন্টের দ্বারস্থ হয়ে অনেক খরচ করে ভিসা আবেদনপত্র প্রস্তুত করতেন। ভিএএফসি-তে ফর্ম পূরণ করার সুবিধা আবেদন প্রতি নামমাত্র ২০০ টাকা পরিষেবা ফি নিয়ে দেওয়া হবে। এটি হবে আইভ্যাক প্রদত্ত একটি ঐচ্ছিক মূল্য সংযোজিত পরিষেবা। চাহিদার উপর নির্ভর করে বাংলাদেশের অন্যান্য আইভ্যাকসমূহেও এই সুবিধা চালু করা হবে।
 
ভিএএফসি-টি জেএফপির আইভ্যাকের কাছেই অবস্থিত, তাই ভিসা আবেদনকারীরা সহজেই ভিএএফসি-তে ভিসা আবেদন প্রস্তুত করতে পারবেন। তারপরে আইভ্যাকে গিয়ে পূর্ণাঙ্গ ভিসা আবেদনপত্র ও নথি জমা দিতে পারবেন, যাতে সময় ও শ্রম উভয়ই বাঁচবে৷ অনলাইনে ফর্ম পূরণে চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হওয়া জনগোষ্ঠীর হাতে ডিজিটাল উপায়ে হাত রাখার একটি প্রয়াস হলো এই ভিএএফসি-টির উদ্বোধন।

বাংলাদেশে অবস্থিত ১৫টি ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্র (আইভ্যাক) ২০০৫ সালের ডিসেম্বর থেকে বাংলাদেশের স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া কর্তৃক পরিচালিত হয়ে আসছে। যমুনা ফিউচার পার্কে অবস্থিত আইভ্যাক ঢাকা ২০১৮ সালের জুলাই থেকে কার্যক্রম শুরু করে, যা বিশ্বের বৃহত্তম ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্র।
 
স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া হলো একটি ভারতীয় পাবলিক সেক্টর ব্যাঙ্ক, বিশ্বের ৩৫টি দেশে যার ২৫ হাজারেরও বেশি শাখা রয়েছে। এসবিআই-এর মোট গ্রাহক সংখ্যা ৪৬ কোটিরও বেশি এবং এর ব্যালেন্স শিটের পরিমাণ ৯০৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। এসবিআই একটি ফরচুন ৫০০  প্রতিষ্ঠান এবং সম্পদের পরিমাণ হিসেবে এটি বিশ্বের শীর্ষ ৫০টি ব্যাঙ্কের মধ্যে রয়েছে। বাংলাদেশে আইভ্যাকসমূহ পরিচালনার পাশাপাশি এসবিআই ঢাকা, চট্টগ্রাম ও খুলনায় ৩টি শাখার মাধ্যমে বাংলাদেশের জনগণকে সেবা দিচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৬, ২০২৩,
টিআর/এসএ
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।