ঢাকা, সোমবার, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৫ আগস্ট ২০২২, ১৬ মহররম ১৪৪৪

জাতীয়

ঢাকায় চতুর্থ শিল্পবিপ্লব নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু ১০ ডিসেম্বর

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২০০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৭, ২০২১
ঢাকায় চতুর্থ শিল্পবিপ্লব নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু ১০ ডিসেম্বর

ঢাকা: বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন আয়োজিত ‘ফোর্থ ইন্ডাস্ট্রিয়াল রেভ্যুলেশন অ্যান্ড বিয়ন্ড’ শীর্ষক দুই দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলন আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় শুরু হবে।

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ভার্চ্যুয়াল প্ল্যাটফর্মে যুক্ত হয়ে ঢাকায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠেয় এ সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে ইউজিসি এ সম্মেলনের আয়োজন করছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১১ ডিসেম্বর সমাপনী অনুষ্ঠানে ভার্চ্যুয়াল প্ল্যাটফর্মে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন।  

সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বিশেষ অতিথি এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।  

সম্মেলনের সার্বিক প্রস্তুতি তুলে ধরার লক্ষ্যে মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) ইউজিসি অডিটরিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন কমিশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. কাজী শহীদুল্লাহ এ তথ্য জানান। এ সময় ইউজিসি সদস্য প্রফেসর ড. দিল আফরোজা বেগম, প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন, প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর, প্রফেসর ড. বিশ্বজিৎ চন্দ, প্রফেসর ড. মো. আবু তাহের, কমিশনের সচিব ও বিভাগীয় প্রধানরা।  

সম্মেলনে তিনজন নোবেল বিজয়ী অধ্যাপক অলিভার হার্ট, স্যার কনস্ট্যান্টিন নভোসেলভ, তাকাকি কাজিতা এবং বিশ্বের সাতজন বিশ্বখ্যাত বিজ্ঞানীসহ দেশের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, প্রযুক্তিবিদ ও গবেষক অংশগ্রহণ করবেন।

সংবাদ সম্মেলনে ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাজী শহীদুল্লাহ বলেন, এ সম্মেলনের মাধ্যমে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের শিক্ষাবিদ ও গবেষকদের মধ্যে যোগাযোগের একটি নেটওয়ার্ক তৈরি হবে। একই সঙ্গে শিল্প-বাণিজ্য প্রতিষ্ঠান ও উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যেও একটি সহযোগিতার সেতুবন্ধন তৈরি হবে।  

তিনি বলেন, এ সম্মেলনে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে এর সম্ভবনাগুলো কাজে লাগাতে দেশের উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর করণীয় নির্ধারণ করা হবে। চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের সঙ্গে সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রযুক্তি পরিচালনার জন্য যথাযথ জ্ঞান ও দক্ষতাসম্পন্ন মানবসম্পদের প্রয়োজন হবে। এ দক্ষ মানবসম্পদ তৈরি করতে দেশের উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে।  

লিখিত বক্তব্যে আন্তর্জাতিক সম্মেলন আয়োজক কমিটির চেয়ার প্রফেসর সাজ্জাদ হোসেন বলেন, এ সম্মেলনের মাধ্যমে ফোরআইআর প্রযুক্তি- কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, আইওটি, ডেটা অ্যানালিটিক্স, ব্লক চেইন এবং ক্লাউড কম্পিউটিং ইত্যাদি ব্যবহার করে শিল্পক্ষেত্রসহ জাতীয় জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিদ্যমান সমস্যা সমাধানের যথোপযুক্ত উপায় খুঁজে বের করা হবে।  

সম্মেলনে মোট ছয়টি মূল প্রবন্ধ উপস্থাপিত হবে। ২১টি টেকনিক্যাল সেশনে মোট ১০০টি গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হবে।  

সম্মেলনে দেশের শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে যৌথ সহযোগিতামূলক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য শিল্প-বাণিজ্য প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিদের সঙ্গে ইউজিসি ও উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে একাধিক ত্রি-পাক্ষিক সমঝোতা সই হবে।  

এছাড়া, স্থানীয় উদ্ভাবনগুলো বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে ‘মুজিব শতবর্ষ আইডিয়া প্রতিযোগিতা-২০২১’ ও ‘মুজিব ১০০ শিল্প প্রদর্শনী-২০২১’ আয়োজন করা হয়েছে বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।  

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৭, ২০২১
এমআইএইচ/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa