ঢাকা, রবিবার, ১৪ মাঘ ১৪২৯, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০৬ রজব ১৪৪৪

রাজনীতি

ব্যাপক প্রস্তুতি

শেখের বেটির অপেক্ষায় সাগরপাড়ের মানুষ

মহিউদ্দিন মাহমুদ, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৬, ২০২২
শেখের বেটির অপেক্ষায় সাগরপাড়ের মানুষ

ঢাকা: শীত মৌসুমে কক্সবাজার পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে মানুষে। শান্ত সাগরের বুকে শরীর এলিয়ে একটু প্রশান্তি খোঁজে পর্যটকরা।

ডিসেম্বর শুরু হলেও এখনও সে আমেজ কক্সবাজারে দেখা যায়নি। কিন্তু জেলা জুড়ে দেখা যাচ্ছে উৎসবের আমেজ। কারণ, পর্যটন নগরীতে আসবেন শেখের বেটি হাসিনা। তাকে বরণ করে নিতে প্রস্তুত হচ্ছেন জেলার মানুষজন। তাই নেওয়া হচ্ছে ব্যাপক প্রস্তুতি। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার আগমন ও আওয়ামী লীগের জনসভা ঘিরে তোরণ, ব্যানার, ফেস্টুনে বর্ণিল সাজে সেজেছে গোটা শহর।

আগামীকাল বুধবার (৭ ডিসেম্বর) সকালে হেলিকপ্টারে চড়ে কক্সবাজার সফরে আসবেন বর্তমান সরকার প্রধান। যোগ দেবেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায়। অংশ নেবেন নৌ-বাহিনীর একটি অনুষ্ঠানে।

জানা গেছে, ১০টায় কক্সবাজারের ইনানি সমুদ্র সৈকত থেকে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২৮ দেশের নৌ-বাহিনী ও মেরিটাইম সংস্থার অংশগ্রহণে চার দিনব্যাপী ইন্টারন্যাশনাল ফ্লিট রিভিউ (আইএফআর) ২০২২’র উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

আন্তর্জাতিক ফ্লিট রিভিউ আয়োজনে অংশ নেবে আটাশ দেশের ৪৩ যুদ্ধ জাহাজ, দুটি বিএন এমপিএ ও চারটি বিএন হেলিকপ্টার। আয়োজনটি করেছে বাংলাদেশে নৌ-বাহিনী।

বিকেলে কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় যোগ দেবেন টানা তিনবারের প্রধানমন্ত্রী। জনসভা থেকে তিনি প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত কক্সবাজার জেলার ২৯টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন। একইসঙ্গে চারটি উন্নয়ন প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি।

জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় সরকার প্রধানের অংশ গ্রহণে জনসমাগম হবে ব্যাপক। আশা করা হচ্ছে, কয়েক লাখ মানুষ এ আয়োজনে অংশ নেবেন। তাই প্রস্তুতিও নেওয়া হচ্ছে সেভাবেই। বরাবরের মতো নৌকা প্রতিকৃতির মঞ্চ নির্মাণ করা হয়েছে জনসভা মাঠে। লাল-সবুজ রঙিন নৌকায় সাজানো হয়েছে স্টেডিয়ামের পাশের জলাধার।

আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের পাশাপাশি বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষকে জনসভায় যোগ দিতে প্রচারণা চালানো হচ্ছে। করা হচ্ছে জনসংযোগ, কর্মীসভা মাইকিং ও লিফলেট বিতরণ।

আওয়ামী লীগ সভানেত্রীকে স্বাগত জানাতে তোরণ, রঙিন বেলুন, ব্যানার-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে শহরের অলি-গলি, রাজপথ। জনসভার বার্তা দেওয়ার পাশাপাশি ব্যানার-ফেস্টুন, লিফলেটে তুলে ধরা হয়েছে আওয়ামী লীগ সরকারের সময়কার নানা উন্নয়নের চিত্র।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা বলেন, সাধারণত পর্যটনের জন্য মানুষ কক্সবাজারে ভ্রমণ করেন। কিন্তু বুধবারের হিসাব ভিন্ন। আগামীকাল কক্সবাজার জেলাসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে নেতাকর্মী, সমর্থকসহ সাধারণ মানুষ আসবে বঙ্গবন্ধু কন্যাকে একনজর দেখতে।

চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবুদ সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন কক্সবাজারের এ আয়োজন সম্পর্কে বলেন, গত ১৪ বছরের উন্নয়নের জন্য মানুষ তাদের প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনাকে বরণ করতে প্রস্তুত। আগামীকাল সাগরপাড় পরিণত হবে জনসমুদ্রে।

দেশের মানুষ তাদের প্রধানমন্ত্রীকে দেখার জন্য উন্মুখ। তার দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য শোনার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে বলে মন্তব্য করেছেন কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী চৌধুরী।

এর আগে জনসভার প্রস্তুতি বিষয়ে জানাতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর এবারের জনসভা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমরা আশা করছি, এবারের জনসভায় প্রায় সাড়ে চার লাখের বেশি মানুষের জমায়েত হবে।

জনসভাস্থল শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের অভ্যন্তরে আড়াই লাখের বেশি মানুষের উপস্থিত হতে পারবে। এর আগে সৈকতের লাবণী ও সুগন্ধা পয়েন্ট, বাহারছড়ার মুক্তিযোদ্ধা চত্বর, হলিডে মোড়, শহীদ সরণী এলাকা, কলাতলীর হোটেল, মোটেল জোন হয়ে কলাতলীর ডলফিন মোড় পর্যন্ত মানুষের জমায়েত হবে। এর জন্য পুরো এলাকা জুড়ে দুই শতাধিক মাইক ব্যবহার করা হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রীর জনসভাকে কেন্দ্র করে নগরজুড়ে নিশ্ছিদ্র ও কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়েছে। শহরের আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর টহল বৃদ্ধির পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোয় মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ ও র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সদস্যদের। বাড়ানো হয়েছে গোয়েন্দা নজরদারি, জনসভা মঞ্চ ঘিরে গড়ে তোলা হয়েছে নিরাপত্তা বলয়।

গত সপ্তাহে যশোর জেলা অনুষ্ঠিত হয় আওয়ামী লীগের মহাসমাবেশ। গত রোববার (৪ ডিসেম্বর) বিকেলে চট্টগ্রামের ঐতিহাসিক পলোগ্রাউন্ড ময়দানে চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর-দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় যোগ দেন আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তারই ধারাবাহিকতায় কক্সবাজারে বুধবারের এ জনসভা। পরবর্তী মাসগুলোয় বিভিন্ন জেলায় নির্বাচনী জনসভায় অংশ নেবেন শেখ হাসিনা।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৬, ২০২২
এমইউএম/এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa