ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ মাঘ ১৪২৮, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

রাজনীতি

বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুরকারী পেল নৌকা প্রতীক!

ডিস্ট্রিক্ট করেসন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭১২ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৭, ২০২১
বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুরকারী পেল নৌকা প্রতীক!

টাঙ্গাইল: আগামী ২৬ ডিসেম্বর চতুর্থ ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাঙচুর মামলার প্রধান আসামি মো. দুলাল হোসেন চকদারকে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন (নৌকা প্রতীক) দেওয়ায় ভূঞাপুরে মানববন্ধন করেছে গোবিন্দাসী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) সকালে উপজেলার গোবিন্দাসী টি-রোডে এ মানববন্ধন হয়।

বঙ্গবন্ধুর হত্যার প্রতিবাদকারী, গোবিন্দাসী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বীর মুক্তিযোদ্ধা ইকরাম উদ্দিন তারা মৃধা ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি, ইব্রাহীম খাঁ সরকারি কলেজের সাবেক জি.এস, গোবিন্দাসী ইউনিয়ের সাবেক চেয়ারম্যান এবং গোবিন্দাসী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মো. আমিনুল ইসলাম আমিনের পরিবর্তে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাঙচুরের প্রধান আসামি মো. দুলাল হোসেন চকদারকে টাকার বিনিময়ে নৌকার মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন মানববন্ধনে অংশ নেওয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন- গোবিন্দাসী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইকরাম উদ্দিন তারা মৃধা, গোবিন্দাসী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম আমিন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জহুরুল ইসলাম, নাজমুল হোসেন তারা, জয়নাল আবেদীন, মো. আমিন মন্ডল, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রফিক, বেলায়েত হোসেনসহ ইউনিয়নের বিভিন্নস্তরের নেতাকর্মীরা মানববন্ধনে অংশ নেন।

বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, ইকরাম উদ্দিন তারা মৃধা ও আমিনুল ইসলাম আমিন জন্মলগ্ন থেকেই আওয়ামী লীগের সঙ্গে কাজ করে আসছে এবং আওয়ামী লীগের মনোনয়নে বিপুল ভোটের ব্যবধানে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন। তাদের বাদ দিয়ে বঙ্গবন্ধুর ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাঙচুরের প্রধান আসামি দুলাল হোসেন চকদারকে টাকার বিনিময়ে ও অনৈতিক প্রক্রিয়ায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।  

বক্তারা বলেন, তিনি (দুলাল হোসেন চকদার) দীর্ঘদিন ধরে বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন। তাকে মনোনয়ন দেওয়ায় ইউনিয়নবাসী চরমভাবে ক্ষুব্ধ হয়েছে। এ কারণে দুলাল হোসেন চকদারের পরিবর্তে যোগ্য কোনো প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়ার জন্য আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পুনর্বিবেচনার দাবি জানান। বক্তারা এ মনোনয়নকে প্রত্যাখান ও প্রতিহত করার ঘোষণা দেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৭, ২০২১
এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa