ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

পর্যটন

সমুদ্রসৈকতে ভাঙনের স্থানে দাঁড়িয়ে পর্যটকদের সৌন্দর্য অবলোকন

সুনীল বড়ুয়া,স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯২৭ ঘণ্টা, আগস্ট ১৩, ২০২২
সমুদ্রসৈকতে ভাঙনের স্থানে দাঁড়িয়ে পর্যটকদের সৌন্দর্য অবলোকন

কক্সবাজার: কয়েকদিনের ভাঙনের কারণে শ্রীহীন হয়ে পড়েছে বিশ্বের দীর্ঘতম কক্সবাজার সমুদ্রসৈকত। লঘুচাপ এবং পূর্ণিমার জোয়ারের প্রভাবে সৈকতের বিভিন্ন পয়েন্টে ভাঙন এখনো অব্যাহত রয়েছে।

ভাঙন কবলিত স্থানে জিওটিউবে বালু ভরে ভাঙন প্রতিরোধের চেষ্টা চালাচ্ছেন পানি উন্নয়ন বোর্ড। ভাঙন দীর্ঘ হলেও পর্যটকদের ভ্রমণে আনন্দের যেন কমতি নেই। অনেকে ভাঙন কবলিত সেই স্থানে দাঁড়িয়েই সমুদ্রের সৌন্দর্য উপভোগ করছেন। এর মধ্যেই চলছে পর্যটকদের সমুদ্রস্নান, বালিয়াড়িতে দৌড়ঝাঁপসহ সৈকত ভ্রমণের নানা আনন্দ। শনিবার (১২ আগস্ট) সৈকতের লাবণী পয়েন্টে দেখা যায়, সমুদ্রের বিশাল বিশাল ঢেউ আছড়ে পড়ছে তীরে। আর ঢেউয়ের তোড়ে ভাঙছে সৈকতের তীর। মূলত এটিই পর্যটকদের ভ্রমণের প্রধান কেন্দ্রবিন্দু। ইতোমধ্যে এ পয়েন্টে ভাঙনের কবলে বিলীন হয়ে গেছে ট্যুরিস্ট পুলিশের একটি তথ্যকেন্দ্র।  

ঝুঁকির মুখে পড়েছে জেলা প্রশাসনের নির্মিত সৈকতের উন্মুক্ত মঞ্চটি। বালুভর্তি জিওটিউব বসিয়ে ভাঙনরোধের চেষ্টা করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। তবে ভাঙনের কারণে সৈকতের এমন বেহাল দশা হলেও পর্যটকদের আনন্দে নেই ভাটার টান। এমনই সৈকতে সমুদ্র স্নানে ব্যস্ত হাজারো পর্যটক। কেউ কেউ জিওটিউব আবার কেউবা সেই স্থানের ওপর দাঁড়িয়েই উপভোগ করছেন সৈকতের সৌন্দর্য। চট্টগ্রাম থেকে ভ্রমণে আসা সুভাস ভট্টাচার্য বাংলানিউজকে বলেন, পরিবারের সবাইকে নিয়ে এসেছি। শিশুরাও আছে। ভাঙনের কারণে শিশুদের একটু সমস্যা হচ্ছে। আমরা সতর্ক থাকতে তেমন সমস্যা হচ্ছে না।

‘ভাঙনের শিকার হয়ে সমুদ্রসৈকতের এমন হাল হবে কোনোদিন ভাবিনি। তবে সরকারের কাছে আবেদন জানাবো, ভাঙনরোধে জরুরিভিত্তিতে যেন ব্যবস্থা নেওয়া হয়। ’ এমন দাবির কথা জানান ঢাকা থেকে আসা পর্যটক মো. মনির হোসেন। পর্যটকরা যেন দুর্ঘটনার শিকার না হয় সেদিকে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে বলে জানান, সৈকতের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউল করিম।

বাংলানিউজকে তিনি বলেন, বৈরী আবহাওয়া এবং পূর্ণিমার জোয়ারের প্রভাবে সাগর এখনো উত্তাল রয়েছে। আপাতত পর্যটকদের সাগরে নামতে একটু বিধি-নিষেধ আরোপ করা হচ্ছে। যেহেতু ঢেউয়ের আঘাতে সৈকতের বিভিন্ন পয়েন্টে ভাঙনের সৃষ্টি হয়েছে, পর্যটকরা যেন কোনোভাবে দুর্ঘটনার শিকার না হন, সেজন্য ট্যুরিস্ট পুলিশ সজাগ রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯২৭ ঘণ্টা, আগস্ট ১৩, ২০২২
এসবি/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa