ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

বাণিজ্যমেলা

টেকসই ফার্নিচার নিয়ে বাণিজ্যমেলায় বনশিল্প

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮৫১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৭, ২০১৭
টেকসই ফার্নিচার নিয়ে বাণিজ্যমেলায় বনশিল্প বাণিজ্য মেলায় এসেছে বাংলাদেশ বনশিল্প উন্নয়ন করপোরেশনের টেকসই ফার্নিচার- ছবি: আনোয়ার হোসেন রানা

ঢাকা: গুনে-মানে সেরা ফার্নিচার নিয়ে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলায় এসেছে বাংলাদেশ বনশিল্প উন্নয়ন করপোরেশন (বিএফআইডিসি)। বৈজ্ঞানিক উপায়ে টিটেড ও সিজন্ড করা কাঠ দিয়ে তৈরি দীর্ঘস্থায়ী ও উন্নতমানের আসবাবপত্রে দর্শনার্থীদের আগ্রহ তৈরি করেছে।

সেগুন ও রাবার কাঠের বক্স খাট, সোফা সেট, চেয়ার ও টেবিলসহ অন্যান্য ফার্নিচার এবং দরজার-জানালার কাঠও পাওয়া যাচ্ছে বিএফআইডিসি’র স্টলে।

বাণিজ্যমেলার সপ্তম দিনে শনিবার (০৭  জানুয়ারি) কথা হয় বিএফআইডিসি’র ডেপুটি ম্যানেজার (আইন) আলাউদ্দিনে সঙ্গে।

তিনি বাংলানিউজকে বলেন, সিজনিং করা কাঠে ফার্নিচার তৈরি হওয়ায় গুনগত মান ভালো। আর লাইফ টাইম ৬০-৭০ বছর। এছাড়া বিক্রয়োত্তর এক বছরের সেবা পাওয়া যায়।
বাণিজ্য মেলায় এসেছে বাংলাদেশ বনশিল্প উন্নয়ন করপোরেশনের টেকসই ফার্নিচার- ছবি: আনোয়ার হোসেন রানা
উল্লেখযোগ্য ফার্নিচারের মধ্যে সেগুন কাঠের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ টেবিলের মূল্য ৭৯ হাজার ৫০০ টাকা, সেগুন কাঠের চেয়ার ২৪ হাজার টাকা, সেগুন কাঠের ডাইনিং টেবিল ও ছয়টি চেয়ারের মূল্য ৭০ হাজার টাকা, বক্সখাট ৪৮ হাজার টাকা, প্রথম শ্রেণীর কাঠের সোফাসেট ৮৪ হাজার টাকা।    
 
আলাউদ্দিন বলেন, সব আসবাবপত্রের কাঠ বৈজ্ঞানিক উপায়ে টিটেড ও সিজন্ড বিধায় র্দীঘস্থায়ী, টেকসই ও উন্নতমান নিশ্চিত করা হয়েছে। রাবার কাঠ রাসায়নিক প্রক্রিয়াজাত ও সিজন্ড বিধায় ফাঁকা ও বাঁকা হয় না, ঘনপোকার আক্রমণ থেকে নিরাপদ, সব মৌসুমে স্বাচ্ছন্দে ব্যবহার করা যায়।
বাণিজ্য মেলায় এসেছে বাংলাদেশ বনশিল্প উন্নয়ন করপোরেশনের টেকসই ফার্নিচার- ছবি: আনোয়ার হোসেন রানা
সিলেট, চট্টগ্রাম ও মধুপুরের বন থেকে গাছ সংগ্রহ করে ঢাকার মিরপুর ও তেজগাঁও, চট্টগ্রামের কালুরঘাটে কাঠ প্রক্রিয়াজাত করে ফার্নিচারে ব্যবহারের জন্য উপযোগী কাঠ তৈরি করা হয়।

বনশিল্পের স্টলে দর্শনার্থীদের দেশীয় কাঠের পণ্য দেখতেও আগ্রহ দেখা যায়। প্রথমবার অংশ নিয়ে মেলায় ভালো সাড়া পাওয়া গেছে বলেও জানান বিএফআইডিসি’র এ কর্মকর্তা।

এদিকে ছুটির দিনে দুপুরের পর মেলায় দর্শনার্থীদের ভিড় বাড়তে শুরু করেছে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত উন্মুক্ত থাকছে মেলার গেট।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৭, ২০১৭
এমআইএইচ/জিপি/এসএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa