ঢাকা, বুধবার, ১ বৈশাখ ১৪২৮, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০১ রমজান ১৪৪২

কৃষি

আমনে স্বপ্ন বুনেছে রাজশাহীর কৃষক

শরীফ সুমন, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০২৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৬
আমনে স্বপ্ন বুনেছে রাজশাহীর কৃষক ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

রাজশাহী: মাঠের পর মাঠ। চারিদেকে কেবলই সবুজ আর সবুজ।

দৃষ্টি পড়লেই নয়ন জুড়িয়ে যায়। এখন বরন্দ্রের রুক্ষ প্রকৃতি জুড়ে সবুজ ফসলের এমনই সমারোহ।

এর কারণ হিসেবে রাজশাহীর কৃষকরা বলছেন, ধানের দাম ভালো থাকায় এবার রাজশাহীর কৃষকরা আমনের আবাদে মন দিয়েছেন। আমনেই স্বপ্ন দেখছেন তারা।

রাজশাহীতে এবার লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে পাঁচ হাজার হেক্টর বেশি জমিতে আমনের আবাদ হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে বাম্পার ফলনের আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

রাজশাহীর পবার মথুরা গ্রামের কৃষক নূরুল আমিন বাংলানিউজকে জানান, চলতি আমন মৌসুমের শুরু থেকেই বৃষ্টি হচ্ছে উষ্ণতা প্রবণ এই অঞ্চলে। বৃষ্টি পেয়েই কৃষকরা পুরোদমে মাঠে নেমে পড়েন। চারা রোপন করেন আমনের। বাজারে ধানের ভালো দাম থাকায় শেষ পর্যন্ত লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে আবাদে।

মাঝখানে ভারী বর্ষণের কারণে জলাবদ্ধতায় আমনের কিছুটা ক্ষতি হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত পোকার আক্রমন না থাকায় আবাদ নিয়ে বড় ধরনের কোনো আশঙ্কা নেই।

‘এখন আবহওয়া প্রতিকূল না হলেই হলো। লকলকিয়ে বেড়ে উঠছে ধানের শীষ। বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে এবার,’ বলেন তিনি।      

পবার পিল্লাপাড়া গ্রামের কৃষক নজরুল ইসলাম বলেন, বাজারে ধানের দাম বেশি থাকায় তিনি নিজেই এবার ৬ বিঘা জমিতে আমনের আবাদ করেছেন। কয়েক দফার বৃষ্টিতে তার ফসলের খেতে বাড়তি সেচ লাগেনি। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় জমিতে সেচের খরচ অনেকটাই সাশ্রয়ী হয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মূলত ধানের ভালো দাম থাকায় বৃষ্টি পেয়ে এবার রাজশাহী অঞ্চলের কৃষকরা আমনের আবাদে ঝুঁকেছেন। ভালো ফলন ও দাম পাওয়ার প্রত্যাশা করছি আমরা।
 
রাজশাহীর পবা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মঞ্জুর-এ-মাওলা বাংলানিউজকে বলেন, এবার মৌসুমের শুরু থেকেই আবহাওয়া আমন চাষের অনুকূলে ছিলো। কৃষকরা সে সুযোগটা নিয়েছেন। এতে আমন আবাদ বেড়েছে।

‘এখন পর্যন্ত আবাদের কোনো ক্ষতি হয়নি। কৃষি কর্মকর্তাদের পরামর্শে ফসলের যত্ন নিচ্ছেন কৃষকরা। ’

তিনি জানান, কৃষকরা আমনের জমিতে আলোর ফাঁদ ব্যবহার করছেন পোকার উপস্থিতি নির্ণয়ের জন্য। লক্ষ্য রাখছেন ফসলের রঙের দিকেও। সরকারের উদ্যোগের কারণে কৃষকরা ধানে ন্যায্যমূল্য পাচ্ছেন। তাই মুনাফার আশায় এবার তারা আমনের বীজ বুনেছেন। সব কিছু ঠিক থাকলে তাদের পূরণ হবেই।

এদিকে, রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক (ডিডি) দেব দুলাল ঢালী জানান, চলতি মৌসুমে রাজশাহীতে ৭০ হাজার ২২৪ হেক্টর জমিতে আমন চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিলো। কিন্তু আবাদ হয়েছে ৭৫ হাজার ৩৩০ হেক্টর জমিতে। গত বছর লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৬৫ হাজার ৭৩৫ হেক্টর।

আমনের আবাদ হয়েছিলো ৭৩ হাজার ৭৩২ হেক্টর জমিতে। সেই হিসেবে এবার লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে আমন আবাদ বেড়েছে ৫ হাজার ১০৬ হেক্টর।

শেষ পর্যন্ত আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এবারও কৃষকের মুখে হাসি ফুটবে বলে জানান রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরে এই শীর্ষ কর্মকর্তা।

বাংলাদেশ সময়: ১০২১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৬
এসএস/এমএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa