ঢাকা, বুধবার, ১ বৈশাখ ১৪২৮, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ০১ রমজান ১৪৪২

কৃষি

ভারতে ‘লিফ মাইনর’, বাংলাদেশেও উদ্বেগ

ইসমাইল হোসেন, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৪৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৪, ২০১৬
ভারতে ‘লিফ মাইনর’, বাংলাদেশেও উদ্বেগ ছবি: সংগৃহীত

একটি পোকার মারাত্মক আক্রমণে ভারতে টমেটো ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পর বাংলাদেশেও এ নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। কৃষিবিদ ও কীটতত্ত্ববিদরা বলছেন, ‘লিফ মাইনর’ নামে এই পোকার আক্রমণ হলে টমেটো ফলন মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

ঢাকা: একটি পোকার মারাত্মক আক্রমণে ভারতে টমেটো ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পর বাংলাদেশেও এ নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে।  কৃষিবিদ ও কীটতত্ত্ববিদরা বলছেন, ‘লিফ মাইনর’ নামে এই পোকার আক্রমণ হলে টমেটো ফলন মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

ইউরোপের এই পোকা ধীরে ধীরে পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে ভারতে আক্রমণ করেছে, বাংলাদেশেও আক্রমণ করতে পারে এমন আশঙ্কা করছেন এ নিয়ে গবেষণা করা এক বিজ্ঞানী।

অন্যতম অর্থকরী ফসলের ক্ষতি ঠেকাতে করণীয় নির্ধারণ করতে সংশ্লিষ্টদের নিয়ে বিশেষ সভা ডেকেছে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল (বিএআরসি)।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি) কৃষিবিদ হামিদুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, ‘লিফ মাইনর’ লেবুর ক্ষতি করতো। টমেটোতে এলে ক্ষতির মাত্রা বড় হতে পারে।

গাজীপুরের বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের কীটতত্ত্ব বিভাগের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. সৈয়দ নুরুল আলম বাংলানিউজকে বলেন, এই পোকা বেগুন, আলুতে আক্রমণ করলেও টমেটোতেই বেশি আক্রমণ করে এবং ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে।

আক্রমণের ধরণ নিয়ে তিনি বলেন, টমেটোর পাতায় দাগ করে ফেলে। পরে ফল ছিদ্র করে টমেটোর ভিতরে চলে যায়। এই পোকা মাটিতেও চলে যায় ফলে সহজেই আক্রমণ করে।

প্রথমে স্পেন এবং পরে ইউরোপের অন্য দেশগুলো থেকে পূর্বের দেশগুলোতে আসছে জানিয়ে তিনি বলেন, ২০১৪ সালে আফগানিস্তান ও ভারতে এই পোকার আক্রমণ দেখা যায়।

‘২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারির শেষ সপ্তাহে উত্তরবঙ্গে রংপুর ও পঞ্চগড়ে এ পোকার আক্রমণ দেখা দেয়। ওই আক্রমণ প্রাথমিক পর্যায়ে ছিলো, এবার যেহেতু উত্তরের জেলাগুলোর সীমান্তে ভারতে আক্রমণ করেছে এজন্য এ বছর হয়তো আক্রমণ বাড়বে।

এই কীট বিজ্ঞানী আরও বলেন, সাধারণত শীতকালে ১৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে তাপমাত্রা থাকলে কম আক্রমণ হয়। অন্য সময় আক্রমণ বেশি।

পূর্ণাঙ্গ ‘লিফ মাইনর’ এক ইঞ্চি সমান, আর লার্ভা তার অর্ধেক হয়। এরা পাতা খেয়ে ফেলে, জানান মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. সৈয়দ নুরুল আলম।  

তিনি আরও বলেন, প্রাথমিক পর্যায়ে থাকায় এখনই ভয়ের কারণ নেই। নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য কাজ শুরু করা হয়েছে। ‘লিভ মাইনর’র প্রতিষেধক হিসেবে জৈব বালাইনাশক ব্যবহার করা যেতে পারে।

৩/৪টি বর্গের মধ্যে একটি বর্গের পোকা মারাত্মক ক্ষতিকর বলে জানিয়েছে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের প্ল্যান্ট প্রটেকশন উইং।
বিএআরসি আগামী ৫ ডিসেম্বর ‘লিফ মাইনর’ বিষয়ে বিশেষ সভা ডেকেছে বলে জানিয়েছেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের বালাইনাশক প্রশাসন ও মাননিয়ন্ত্রণ উদ্ভিদ সংরক্ষণ উইংয়ের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক এজেডএম ছাব্বির ইবনে জাহান।  

বাংলানিউজকে তিনি বলেন, সভায় বিশেষজ্ঞদের মতামত নিয়ে বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে করণীয় নির্ধারণ করা হবে।

বাংলাদেশ সময়: ০৬৪১ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৪, ২০১৬
এমআইএইচ/এটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa