ঢাকা, শনিবার, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩ শাবান ১৪৪৫

ফুটবল

টাইব্রেকারে জার্মানির কাছে হেরে আর্জেন্টিনার স্বপ্নভঙ্গ

স্পোর্টস ডেস্ক  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০২৩
টাইব্রেকারে জার্মানির কাছে হেরে আর্জেন্টিনার স্বপ্নভঙ্গ

বড়দের বিশ্বকাপে একবার জার্মানির কাছে ফাইনালে হেরে গিয়েছিল আর্জেন্টিনা। ২০১৪ বিশ্বকাপের সেই দুঃস্বপ্ন ২০২২ আসরে কাটিয়ে উঠেছিল লিওনেল স্কালোনির দল।

দীর্ঘ খরা ঘুচিয়ে বিশ্বচ্যাম্পিয়নের মুকুট পরেছেন লিওনেল মেসিরা।  

এবারের অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপেও দারুণ ছন্দে ছিল আর্জেন্টিনা। কোয়ার্টার ফাইনালে তারা উড়িয়ে দেয় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলকে। কিন্তু সেমিফাইনালে জার্মানদের কাছে টাইব্রেকারে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হলো জুনিয়র আলবিসেলেস্তেদের।

ইন্দোনেশিয়ার মানাহান স্টেডিয়ামে আজ নির্ধারিত সময়ের খেলা ৩-৩ গোলের সমতায় শেষ হয়। আর্জেন্টিনার ৩টি গোলই করেন আগুস্তিন রুবের্তো। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বিফলেই যায় তার কীর্তি। কারণ টাইব্রেকারে জার্মানরা জয় তুলে নেয় ৪-২ গোলে।  

শুরু থেকে আক্রমণ শানানোর ক্ষেত্রে এগিয়ে ছিল আর্জেন্টিনাই। এর মধ্যে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা ১০ নম্বর জার্সিধারী ক্লদিও ইচেভেরি একাই সুযোগ পেয়েছিলেন বেশ কয়েকবার। কিন্তু স্রোতের বিপরীতে গোল করে বসে জার্মানি। নবম মিনিটে আর্জেন্টিনার জাল কাঁপান প্যারিস ব্রানার।  

পিছিয়ে পড়ার পর ম্যাচে ফিরতে মরিয়া চেষ্টা শুরু করে আর্জেন্টিনা। এবারও ইচেভেরির ব্যর্থতায় সুযোগ নষ্ট হয় তাদের। তবে দীর্ঘ সময় অপেক্ষায় থাকতে হয়নি তাদের। ৩৬তম মিনিটে সমতা ফেরানো গোলটি করেন আগুস্তিন রুবের্তো। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ের চতুর্থ মিনিটে দলকে এগিয়েও দেন এই তরুণ ফরোয়ার্ড।

দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণে জোর দেয় জার্মানি। একের পর এক আক্রমণে তারা কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পেয়েও যায়। ৫৮তম মিনিটে ব্রানার নিজের ও দলের দ্বিতীয় গোলটি করেন। এর মিনিট দশেক পর আর্জেন্টিনাকে চাপে ফেলে দেওয়া গোলটি করেন ম্যাক্স ময়ের্সটেট। তার অবদানে নির্ধারিত সময়ের খেলা শেষে ৩-২ ব্যবধানে এগিয়ে ছিল জার্মানি।  

তবে আর্জেন্টিনা হাল ছাড়েনি। যোগ করা সময়ের সপ্তম মিনিটে ব্যবধান ঘুচিয়ে দেয় তারা। দারুণ গোলে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন রুবের্তো। আসরের গোল্ডেন বুটও নিশ্চিত হয়ে যায় তার। কিন্তু শেষ হাসি হাসে জার্মানিই। টাইব্রেকারে গড়ানোর পর নিজেদের প্রথম দুই শটই মিস করে আর্জেন্টিনা। যা শেষ পর্যন্ত ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দেয়। জার্মানরা একটি শট মিস করলেও শেষ হাসি হাসে তারাই।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১২ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০২৩
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।