ঢাকা, বুধবার, ২৫ মাঘ ১৪২৯, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৬ রজব ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

তারুণ্যের উচ্ছ্বাসের কবিতা উৎসব শুরু

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৮, ২০২২
তারুণ্যের উচ্ছ্বাসের কবিতা উৎসব শুরু

চট্টগ্রাম: পাঁচ বছরের ধারাবাহিকতায় পঞ্চমবারের মতো এবারও বর্ণিল অনুষ্ঠানমালায় নগরে শুরু হয়েছে তিন দিনের কবিতা উৎসব।  

বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) বিকেলে এমএম আলী সড়কের জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে তারুণ্যের উচ্ছ্বাসের আয়োজনে এ উৎসবের উদ্বোধন করেন বরেণ্য সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়।

উদ্বোধনী বৃন্দ আবৃত্তি পরিবেশন করেন তারুণ্যের উচ্ছ্বাসের শিল্পীরা। এরপর ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয় প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা ও লেখিকা বেগম মুশতারী শফীর প্রতিকৃতিতে।

এ উৎসব তাঁর স্মৃতির প্রতি উৎসর্গ করা হয়েছে।

তারুণ্যের উচ্ছ্বাস সভাপতি কবি ভাগ্যধন বড়ুয়ার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুজাহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আবৃত্তিশিল্পী সংসদের সদস্যসচিব অধ্যাপক ড. রূপা চক্রবর্ত্তী, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, প্যানেল মেয়র মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন। উপস্থিত ছিলেন বেগম মুশতারী শফীর সন্তান সমাজকর্মী মেহরাজ তাহসিন শফী।

বক্তারা বলেন, মানব সভ্যতার রূপায়ণে কবি ও কবিতা অবিচ্ছেদ্য অংশ। বিপ্লবীর রক্তে রঞ্জিত এ চট্টগ্রামে লিখিত হয়েছে শোষণমুক্তির মহাকাব্য। এখানেই রচিত হয়েছে একুশের প্রথম কবিতা। তারই ধারাবাহিকতায় বন্দরনগরের বাঁকে বাঁকে জমা আছে কবিতার প্রবহমানতা। কবিতাকে ঘিরে তারুণ্যের উচ্ছ্বাসের এ বিশাল আয়োজন সেই প্রবহমানতারই ধারাবাহিকতা।  

বেগম মুশতারী শফীর লেখা থেকে পাঠ করেন আবৃত্তিশিল্পী অঞ্চল চৌধুরী, শুভ্রা বিশ্বাস, মিলি চৌধুরী, রেখা নাজনীন, ফারুক তাহের ও প্রণব চৌধুরী।

প্রথম দিন আবৃত্তিশিল্পী শ্রাবণী দাশগুপ্তার সঞ্চালনায় আবৃত্তি পরিবেশন করেন আয়েশা হক শিমু, লুবাবা ফেরদৌসি সায়কা, বনকুসুম বড়ুয়া নূপুর, শাহরীয়ার তানজিম, শাহেদুল ইসলাম, জলি চৌধুরী, অনন্যা চৌধুরী, শামীমা ইয়াছমিন, তৈয়বা জহির আরশি, অনির্বাণ চৌধুরী, উমে সিং মারমা, ইকবাল হোসেন জুয়েল, ঐশী পাল, সুপ্রিয়া চৌধুরী, জেবুন নাহার শারমিন, বর্ষা চৌধুরী, মো. সেলিম ভূইয়া, মশরুর হোসেন, ফাইরুজ নাওয়াল দুর্দানা, সায়রা বানু রৌশনী, বেনজির বিনতে শওকত, শাহাদাত হোসেন ও আল ইমরান।  

কবিতাপাঠ করেন কবি স্বপন দত্ত, সাথী দাশ, কমলেশ দাশগুপ্ত, রিজোয়ান মাহমুদ, নাজিমুদ্দীন শ্যামল, বিদ্যুৎ কুমার দাশ, পুলক পাল, নিশাত হাসিনা শিরিন, আলী প্রয়াস, ফাউজুল কবির, আশীষ সেন, হাফিজ রশিদ খান, শাহীন মাহমুদ, খালেদ হামিদী, অনুপমা অপরাজিতা ও আজিজ কাজল।

শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) উৎসবের দ্বিতীয় দিনের আয়োজন শুরু হবে সকাল ১০টা থেকে। সকালে রয়েছে তারুণ্যের উচ্ছ্বাস সদস্য সম্মিলন। বিকেলে রয়েছে কবিতার মিছিল শিরোনামের শোভাযাত্রা। এরপর কথামালা এবং ‘শান্তনু বিশ্বাস স্মৃতি প্রণোদনা পদক’ প্রদান অনুষ্ঠান। এ বছর পদক পাচ্ছেন নন্দিত আবৃত্তি ও গল্পকথনশিল্পী তামান্না তিথি। এ পর্বে প্রধান অতিথি থাকবেন দেশবরেণ্য সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ম. হামিদ। বিশেষ অতিথি থাকবেন বাংলাদেশ আবৃত্তিশিল্পী সংসদের যুগ্ম আহ্বায়ক দেওয়ান সাইদুল হাসান, জসীম উদ্দীন বকুল, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আলম বাবু, নাট্যজন শুভ্রা বিশ্বাস এবং দেশের জনপ্রিয় উপস্থাপক ও আবৃত্তিশিল্পী শারমিন লাকি। দেশের ৮টি বিভাগ থেকে আমন্ত্রিত শিল্পীরা আবৃত্তি পরিবেশন করবেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৮, ২০২২
এআর/পিডি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa