ঢাকা, রবিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৯ মে ২০২৪, ১০ জিলকদ ১৪৪৫

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

দেশের বিভিন্ন স্থানে মাস্টারদা সহ বিপ্লবীদের ভাস্কর্য স্থাপন করার দাবি

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪০৬ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৮, ২০২৪
দেশের বিভিন্ন স্থানে মাস্টারদা সহ বিপ্লবীদের ভাস্কর্য স্থাপন করার দাবি বক্তব্য দেন বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. মাহফুজুর রহমান।

চট্টগ্রাম: বাংলার ইতিহাসে গৌরবগাথা কম নয়। কিন্তু প্রায় বিস্মৃতির অতলে চলে গেছে আমাদের জাতীয় জীবনের এক অমূল্য বীরত্বগাথা চট্টগ্রাম যুব বিদ্রোহ।

সাম্রাজ্যবাদী ইংরেজদের সমস্ত অহংকার চূর্ণ করে দিয়েছিলেন মাস্টারদা সূর্যসেনের নেতৃত্বে কয়েকজন তরুণ যোদ্ধা।  

দোর্দণ্ডপ্রতাপের ব্রিটিশ শাসনের বিশাল ভারতবর্ষে চট্টগ্রামকে ৪দিন স্বাধীন করে রেখেছিল কয়েকজন অকুতোভয় বিপ্লবী।

সেই ঘটনা স্মরণে রেখে সাড়ম্বরে উদযাপন করলো বোধন আবৃত্তি পরিষদ চট্টগ্রাম।  

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) চট্টগ্রাম থিয়েটার ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ‘রাস্তা জুড়ে রোদ হোক’ শিরোনামে দ্বিতীয়বারের মত আয়োজিত যুব বিদ্রোহ উৎসবের শুরুতে যন্ত্র সংগীত পরিবেশন করেন দুর্জয় পাল ও প্রদ্যুৎ আচার্য। পরে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। বোধন আবৃত্তি পরিষদের সহ-সভাপতি সুবর্ণা চৌধুরীর সভাপতিত্বে এতে অংশ নেন মুক্তিযোদ্ধা গবেষক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. মাহফুজুর রহমান, পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ চট্টগ্রামের সভাপতি ডা. এ কিউ এম সিরাজুল ইসলাম, কবি কমলেশ দাশগুপ্ত, প্রীতিলতা ট্রাস্টের সভাপতি পংকজ ভট্টাচার্য।  

বক্তারা চট্টগ্রাম যুব বিদ্রোহে যাঁরা নিজেদের উৎসর্গ করেছিলেন সেই মহান শহিদদের আদর্শ তরুণদের সামনে তুলে ধরতে হবে উল্লেখ করে যুব বিদ্রোহের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক প্রগতিশীল সমাজ কাঠামো গড়ে তোলার আহ্বান জানান। যুব বিদ্রোহে অংশ নেওয়া বিপ্লবীদের স্মরণে রাষ্ট্রকে আরো নানা উদ্যোগ নিতে হবে জানিয়ে তারা দেশের বিভিন্ন স্থানে মাস্টারদা সূর্যসেন, প্রীতিলতাসহ বিপ্লবীদের ভাস্কর্য স্থাপনের জন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান।

বোধনের সাংগঠনিক সম্পাদক গৌতম চৌধুরীর সঞ্চালনায় সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন বোধনের অনুষ্ঠান সম্পাদক মৃন্ময় বিশ্বাস। দলীয় নৃত্য পরিবেশনায় ছিল নৃত্য নিকেতন ও মাধুরী নৃত্যকলা একাডেমি। দলীয় গানে অংশ নেয় সংগীতালয়, উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী। একক আবৃত্তি পরিবেশনায় ছিলেন সুচয়ন ললিতকলা কেন্দ্রের আবৃত্তিশিল্পী তাসকিয়া তুন নূর তানিয়া, প্রমা আবৃত্তি সংগঠনের মৌসুমী মৌ, নরেন আবৃত্তি একাডেমির আবৃত্তিশিল্পী পৃথা পারমিতা। কবিতা পাঠে অংশ নেন কবি ফারহানা আনন্দময়ী ও কবি সারাফ নাওয়ার।

সবশেষে বোধন আবৃত্তি পরিষদের শিশু ও বড়দের বৃন্দ আবৃত্তি পরিবেশনার মধ্য দিয়ে শেষ হয় যুব বিদ্রোহ উৎসব।

বাংলাদেশ সময়: ১৪০০ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৮, ২০২৪ 
এসি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।