ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৯ মে ২০২২, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

'বাংলাদেশের কিছু আইন স্বাধীন সাংবাদিকতায় বড় বাধা'

ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৮, ২০২২
'বাংলাদেশের কিছু আইন স্বাধীন সাংবাদিকতায় বড় বাধা' ...

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়: ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টের কিছু ধারা নিয়ে সাংবাদিকদের আপত্তির এখনো কোনো সুরাহা হয়নি। এরকম আরও কিছু আইনগত জটিলতা বাংলাদেশের সাংবাদিকতাকে নানাভাবে বাধাগ্রস্ত করছে।

এ অবস্থায় আবার নতুন করে ডাটা প্রটেকশন অ্যাক্ট প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের উদ্যোগে সাংবাদিকদের মধ্যে নতুন আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। তাই বাংলাদেশের কিছু আইন স্বাধীন সাংবাদিকতায় বড় বাধা হয়ে আছে।  

শুক্রবার (২৮ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির (চবিসাস) রজতজয়ন্তী উৎসবে 'করোনা পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের সাংবাদিকতায় চ্যালেঞ্জ ও করণীয়' বিষয়ে মুখ্য আলোচক যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সভাপতি মো. শহীদুল হক এসব কথা বলেন।  

মো. শহীদুল হক বলেন, বাংলাদেশের সাংবাদিকতা বিভিন্ন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি। করোনা পরিস্থিতিতে চ্যালেঞ্জ আরও বেড়ে গেছে। আইনগত জটিলতা, রাজনীতিক ও মতাদর্শগত কারণে হয়রানি, তথ্যপ্রাপ্তির সীমিত সুযোগ, সামাজিক গণমাধ্যমের চাপ, যথাযথ শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের অভাব, চাকরি হারানোর ভয়, ব্যক্তিগত গোপনীয়তা লঙ্ঘন, শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন এবং বেতন নিয়ে জটিলতা বাংলাদেশের সাংবাদিকতায় লেগেই আছে।

সাংবাদিকদের ওপর রাজনৈতিক নিপীড়ন বাংলাদেশের সাংবাদিকতাকে পঙ্গু করে দিচ্ছে। এ অবস্থা থেকে রক্ষা পেতে হলে রাজনৈতিক লেজুড়বৃত্তি ও অন্যায়ভাবে প্রভাব বিস্তারের প্রবণতা রোধ করতে হবে। রাজনৈতিক ও মতাদর্শগত কারণে সাংবাদিক হয়রানি বাংলাদেশের সাংবাদিকতায় একটি ঘৃণ্য কালো অধ্যায়। এমন অনেক চ্যালেঞ্জ সাংবাদিকদের মোকাবেলা করতে হচ্ছে।  

>> চবি সাংবাদিক সমিতির রজতজয়ন্তী উদযাপন 

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৮, ২০২২
এমএ/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa