ঢাকা, রবিবার, ২ আষাঢ় ১৪৩১, ১৬ জুন ২০২৪, ০৮ জিলহজ ১৪৪৫

জাতীয়

বিদ্যুৎহীন আড়াইহাজার উপজেলা, মেঘনায় ভাঙন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬০২ ঘণ্টা, মে ২৭, ২০২৪
বিদ্যুৎহীন আড়াইহাজার উপজেলা, মেঘনায় ভাঙন

নারায়ণগঞ্জ: ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে ঝোড়ো হাওয়া-বৃষ্টিতে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার প্রায় সব গ্রাম রাত থেকে বিদ্যুৎহীন অবস্থায় রয়েছে। এতে সীমাহীন ভোগান্তি তৈরি হয়েছে।

সোমবার (২৭ মে) বিকেলে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, রাত থেকে তীব্র বাতাস ও টানা বৃষ্টিতে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে গাছ ভেঙে পড়েছে। এতে বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে গেছে। এতে গ্রামগুলো বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে। উপজেলার কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নে মেঘনা নদীতে পানি বেড়েছে। জোয়ারের তীব্রতায় নদীতে ভাঙন শুরু হয়েছে।  

বিদ্যুৎহীন অবস্থায় সীমাহীন ভোগান্তিতে পড়েছেন বাসিন্দারা। অনেকে রাত থেকে পানি উঠাতে না পেরে এখন বিশুদ্ধ খাবার পানির সংকটে আছেন। এ ছাড়া বৃষ্টিতে কাঁচা সড়কগুলোতে পানি জমে তা চলাচলের অনুপযুক্ত হয়ে পড়েছে। উপজেলায় বিশনন্দী ফেরিঘাট বৈরী আবহাওয়ায় বন্ধ রাখা হয়েছে। মাঝে মাঝে দুই-একবার ফেরি চললেও তাতে থাকছে দুর্ঘটনার শঙ্কা।

উপজেলায় বিশনন্দী গ্রামের বাসিন্দা মজিবুর রহমান জানান, বৃষ্টিতে রাত থেকে বিদ্যুৎ নেই। আমরা পানি উঠাতে পারছি না। সব মিলিয়ে অনেক সমস্যায় আছি।

কালাপাহাড়িয়া এলাকার বাসিন্দা মহিতুল ইসলাম হিরু জানান, আমাদের মেঘনা নদীতে ভাঙন শুরু হয়েছে। এভাবে চললে ঘরবাড়িও ভাঙনে পড়তে পারে।

আড়াইহাজার পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম আসাদুজ্জামান জানান, শুধু সদর এলাকায় বিদ্যুৎ দেওয়া হচ্ছে রোস্টারিং করে। বাকি বিভিন্ন এলাকায় তিন-চারটি বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে পড়েছে। বিভিন্ন স্থানে গাছ ভেঙে বিদ্যুতের তার-খুঁটিতে পড়েছে। এসব কারণে বিদ্যুৎ দেওয়া যাচ্ছে না, কখন বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হবে, বলা যাচ্ছে না।

উপজেলার গোপালদী পৌরসভার পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম সরোয়ার জাহান জানান, বিভিন্ন এলাকায় ঝোড়ো বাতাসে বিদ্যুতের তার-খুঁটি পড়ে গেছে, কোথাও কোথায় বিদ্যুতের তারে গাছপালা ভেঙে পড়েছে, এ কারণে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ আছে। কখন বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হবে, বলা যাচ্ছে না।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৮ ঘণ্টা, মে ২৭, ২০২৪
এমআরপি/আরএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।