ঢাকা, শুক্রবার, ৪ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ আগস্ট ২০২২, ২০ মহররম ১৪৪৪

জাতীয়

পারিবারিক আদালতে মামলার ফি বাড়লো চারগুণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪১ ঘণ্টা, জুলাই ৩, ২০২২
পারিবারিক আদালতে মামলার ফি বাড়লো চারগুণ

ঢাকা: ফি বাড়িয়ে নতুন ‘পারিবারিক আদালত আইন-২০২২' এর খসড়ায় চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে রোববার (৩ জুলাই) অনুষ্ঠিত ভার্চ্যুয়াল মন্ত্রিসভা বৈঠকে এই অনুমোদন দেয়া হয়।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, সামরিক শাসনামলের আইনটি ১৯৮৫ সালে একটি পারিবারিক আদালত অধ্যাদেশের মাধ্যমে হয়, সেই অধ্যাদেশে পারিবারিক বিষয়গুলো- দাম্পত্য কলহ, তালাক, ম্যারিজ রেস্টোরেশন, শিশুদের ভরণপোষন- এ বিষয়গুলো ছিল। এর আগে এ বিষয়গুলো ফৌজদারি কার্যবিধির ৪(৮৮)-তে বিবেচ্য হতো। হাইকোর্টের বিধি-বিধান অনুযায়ী এটিকে (সামরিক শাসনামলের অধ্যাদেশ) আইনে পরিণত করতে হবে, তাই এ আইনের খসড়াটি নিয়ে আসা হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘আগে যেটা ছিল মোটামুটি সেটাই আছে। বিবাহ বিচ্ছেদ, দম্পত্য অধিকার পুনরুদ্ধার, দেনমোহর, ভরণপোষন এবং শিশু সন্তানদের অভিভাবকত্ব ও তত্ত্বাবধান সংক্রান্ত বিষয়গুলো এ আদালত বিবেচনায় নেবে।

তিনি বলেন, একটা মূল পরিবর্তন আনা হয়েছে। সেটা হলো- আগে ছিল, যে আদালতে রায় হবে, সেটার আপিল কর্তৃপক্ষ ছিলেন জেলা জজ। এখান সংশোধন এনে বলা হচ্ছে, জেলা পর্যায়ে আরও জজ আছেন, নারী-শিশু বা শ্রম আদালত। শুধু জেলা জজ বললে তার ওপর একটু বেশি চাপ পড়ে যায়। সরকার যদি মনে করে কোন জেলাতে আপিলের জন্য অতিরিক্ত মামলা আছে, সেক্ষেত্রে জেলা জজ পর্যায়ের অন্যান্য যে জজরা রয়েছেন, তাদেরকেও আপিল আদালত হিসেবে বিবেচনা করা যাবে।

তিনি জানান, মামলার ক্ষেত্রে ফি যেটা ৫০ টাকা ছিল, সেটাকে বাড়িয়ে ২০০ টাকা করা হয়েছে। যদিও বাড়িয়ে এখন যেটা করা হয়েছে সেটাও অনেক কম। কারণ বেশির ভাগ ক্ষেত্রে একটু অসহায় মেয়েরা এসে মামলা করে সেই দিক বিবেচনা করে ফি-টা তেমন বাড়ানো হয়নি।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪১ ঘণ্টা, ৩ জুলাই, ২০২২
এমআইএইচ/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa