ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ কার্তিক ১৪২৮, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সালতামামি

ময়মনসিংহবাসীকে মেয়র টিটু’র ৪ উপহার

এম.আব্দুল্লাহ আল মামুন খান, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৫৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১, ২০১৪
ময়মনসিংহবাসীকে মেয়র টিটু’র ৪ উপহার

ময়মনসিংহ : নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি মোতাবেক কাজ করতে বিদায়ী বছরের পুরোটা সময় ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র ও তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা মো. ইকরামুল হক টিটু।

আধুনিক তিলোত্তমা শহর গড়ার প্রত্যয় থেকেই শহরজুড়ে তার নেতৃত্বে চলে দৃষ্টিনন্দন বিউটিফিকেশন ও পরিকল্পিত উন্নয়ন।



মেয়র টিটু’র উন্নয়ন ভাবনা ‘সুন্দর শহর’ এর আলোকে নেওয়া হয়েছে নতুন নতুন প্রয়াস।

শহরের প্রায় প্রত্যেকটি মোড়ের আইল্যান্ডগুলোকে কেন্দ্র করে ইতিহাস, ঐতিহ্য ও প্রকৃতির নজরকাড়া থিমে চলমান সৌন্দর্যায়নের বর্ণচ্ছটায় ক্রমশ বদলে যাচ্ছে ময়মনসিংহ।

কালের কপোলতলে চিরদিনের জন্য হারিয়ে যাওয়া গত বছরটি ময়মনসিংহ শহরের বাসিন্দাদের মেয়র টিটু’র ৪ উপহার স্মরণীয় হয়ে থাকবে। আন্দোলিত করবে ময়মনসিংহ শহরবাসীকে।

নান্দনিক শাপলা স্কয়ার

নান্দনিকভাবে সাজানো হয়েছে ময়মনসিংহ শহরের প্রাণকেন্দ্র গাঙ্গিনারপাড় মোড়কে। নতুন নাম দেয়া হয়েছে শাপলা স্কয়ার। গাঙ্গিনারপাড় মোড়ে প্রায় দেড়শো বছরের পুরনো ঐতিহ্যবাহী পানির ট্যাংকের নিচে নুড়ি পাথরের সামনে বসানো হয়েছে ঝিনুক। দু’পাশে দু’টি সাদা বক। তার সঙ্গেই রয়েছে এনসিসি ব্যাংকের সৌজন্যে এটিএম বুথ।

নতুন বাজার মোড় এখন পায়রা চত্ত্বর  

নতুন রূপে সেজেছে শহরের গুরুত্বপূর্ণ নতুন বাজার মোড়ও। এ মোড় এখন শান্তির প্রতীক পায়রা চত্ত্বর হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। নান্দনিকতার আদলে গড়া এ পায়রা চত্বরকে উৎসর্গ করা হয়েছে ময়মনসিংহের প্রয়াত সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মোতাহার হোসেন বাচ্চুকে।

র‌্যালীর মোড় এখন বিজয় মোড়

ময়মনসিংহ শহরের র‌্যালির মোড় ময়মনসিংহের মুক্তিযুদ্ধের বিজয় পথ। ১৯৭১ সালের ১০ ডিসেম্বর সকালে এ স্থান দিয়েই মুক্তিযোদ্ধারা ময়মনসিংহ শহরে প্রবেশ করেছিল। ইতিহাস-ঐতিহ্যকে বিমূর্ত করে রাখতেই মহান মুক্তিযুদ্ধকে স্মরণীয় করে রাখার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে ‍এখানে।

সেই দৃষ্টিকোণ থেকেই ময়মনসিংহের মাইলফলক এ মোড়টিকে নতুন করে সাজানো হয়েছে। নামকরণ করা হয়েছে র‌্যালির  মোড়। এ মোড়ে প্রতিস্থাপন করা হয়েছে ৮ বীর শ্রেষ্ঠের ম্যুরাল। অপরূপ টেরাকাটায় এ নান্দনিকতা মুগ্ধ করেছে পথচারীদের।

প্রথম শহীদ মিনার ‘স্মৃতি অম্লান’  

মহান মুক্তিযুদ্ধেও ময়মনসিংহের অধ্যায় গৌরবগাঁথা। স্বাধীনতার সংগ্রাম ও বীরত্বেও ময়মনসিংহের অতীত উজ্জ্বল। ময়মনসিংহ পৌরসভা মোড়ে স্থাপিত হয়েছিল ময়মনসিংহের প্রথম শহীদ মিনার। কালের বিবর্তনে এ ইতিকথা হারিয়ে যেতে বসেছিল। নান্দনিক রূপ দিয়ে তা ফিরিয়ে এনে নির্মাণ করা হয়েছে প্রথম শহীদ মিনার স্মারক ভাস্কর্য। বিদায়ী বছরের শেষ দিন সন্ধ্যায় মেয়র ইকরামুল হক টিটু আনুষ্ঠানিকভাবে এ ভাস্কর্য ‘স্মৃতি অম্লান’ উদ্বোধন করেন।  

ময়মনসিংহ শহরের পরিকল্পিত উন্নয়ন প্রসঙ্গে ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র মো: ইকরামুল হক টিটু বলেন, ‘ময়মনসিংহ শহরকে দৃষ্টিনন্দন ও অনন্য সুন্দর স্থাপত্য শৈলীর মাধ্যমে সৌন্দর্যের বর্ণচ্ছটায় সাজানো হচ্ছে। ’

বাংলাদেশ সময় ১০৪৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০১, ২০১৪
সম্পাদনা: খুররম জামান,  ডিপ্লোম্যাটিক অ্যাফেয়ার্স এডিটর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa