ঢাকা, শনিবার, ২১ মাঘ ১৪২৯, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১২ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

উখিয়ায় পুলিশের সঙ্গে ‘গুলি বিনিময়’, ২ রোহিঙ্গা নিহত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২২৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১০, ২০২২
উখিয়ায় পুলিশের সঙ্গে ‘গুলি বিনিময়’, ২ রোহিঙ্গা নিহত

কক্সবাজার: কক্সবাজারে উখিয়ায় বালুখালী শরণার্থী শিবিরে আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ান (এপিবিএন) সদস্যদের  সঙ্গে গোলাগুলিতে দুই রোহিঙ্গার মৃত্যু হয়েছে। পুলিশের দাবি নিহতরা রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী, পরে ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী জানান, শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) রাতে উখিয়া উপজেলার বালুখালী ৮-ইস্ট নম্বর রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পের বি-৬২ ব্লক ও বি-৪৯ ব্লকের মাঝামাঝি এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

নিহতদের মধ্যে বালুখালী ৮-ইস্ট নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বি-২৮ ব্লকের বাসিন্দা মোহাম্মদ নুর ওরফ ইউনুছের ছেলে সলিম উল্লাহ (৩৩)  ও  উখিয়ার বালুখালী ৮-ইস্ট নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বি-৩৪ ব্লকের বাসিন্দা গোলাম কাদিরের ছেলে মোহাম্মদ রেদোয়ান (২৬)।

আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের বরাতে দিয়ে ওসি মোহাম্মদ আলী বলেন, রাতে উখিয়ার বালুখালী ৮-ইস্ট নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের হেড মাঝি ( প্রধান কমিউনিটি নেতা ) মোহাম্মদ রফিককে হত্যার উদ্দ্যেশে ৪০/৫০ জন সশস্ত্র লোক জড়ো হয়েছে-এমন খবরে এপিবিএনের একটি দল সেখানে অভিযান চালায়।

তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছলে সন্ত্রাসীরা ‘পুলিশ, পুলিশ, পুলিশ’ বলে চিৎকার শুরু করে। এক পর্যায়ে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা এপিবিএন সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়তে থাকে। আত্মরক্ষার্থে এপিবিএন সদস্যরাও পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে নিজেদের ছোড়া গুলিতে দুই রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী ঘটনাস্থলেই মারা যায়। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশি করে দেশীয় তৈরি একটি বন্দুক, ১টি ম্যাগজিন ও ৭০টি গুলি পাওয়া যায়।

ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করে গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

পুলিশ পরিদর্শক জানান, নিহতদের মরদেহ উখিয়া থানার হেফাজতে রয়েছে। শনিবার (১০ ডিসেম্বর) সকালে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ দুটি কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১২২৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১০, ২০২২
এসবি/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa