ঢাকা, রবিবার, ৮ বৈশাখ ১৪৩১, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ১১ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

ব্যক্তিমালিকানার বাঁশ কেটে নেওয়ার অভিযোগ বন বিভাগের বিরুদ্ধে

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬০৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২৪
ব্যক্তিমালিকানার বাঁশ কেটে নেওয়ার অভিযোগ বন বিভাগের বিরুদ্ধে

বরগুনা: বরগুনার বেতাগীতে ব্যক্তি মালিকানাধীন শতাধিক বাঁশ বিনা অনুমতিতে কাটার অভিযোগ উঠেছে বন বিভাগের বিরুদ্ধে।  

তবে বন বিভাগের দাবি, সরকারি নার্সারির কাজে ব্যবহার করা হবে এসব বাঁশ।

 

তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) উপজেলার বেতাগী সদর ইউনিয়নের জিনবুনিয়া ও মোকামিয়া ইউনিয়নের ছোট মোকামিয়া গ্রামের বেড়িবাঁধের পাশে ব্যক্তি মালিকানাধীন বাঁশঝাড় থেকে কাউকে না বলে প্রায় দুই শতাধিক বাঁশ কেটে নিয়ে যায় বন বিভাগ।

মোকামিয়া ইউনিয়নের ছোট মোকামিয়া গ্রামের মোহাম্মদ রাব্বির নিজস্ব জমির একটি বাঁশঝাড় থেকে ৪০-৫০টি বাঁশ তাকে না বলে কেটে নিয়ে গেছেন বন বিভাগের লোকজন। এছাড়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেড়িবাঁধসংলগ্ন জমিতে লাগানো ব্যক্তি মালিকানাধীন বিভিন্ন বাঁশঝাড় থেকে এভাবে বাঁশ কেটে নেওয়া হয়েছে। বেতাগী সদর ইউনিয়নের জিনবুনিয়া গ্রামের নজরুল খান উপজেলা বন কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ জানালেও কোনো প্রতিকার পাননি।  

মোকামিয়া ইউনিয়নের ছোট মোকামিয়া গ্রামের মোহাম্মদ রাব্বি বলেন, আমাকে  না বলে আমার জমির বাঁশঝাড় থেকে ৪০-৫০টি বাঁশ কেটে নিয়ে গেছে।  

উপজেলা বন কর্মকর্তা মো. বেলায়েত হোসেন বলেন, সরকারি নার্সারি করার জন্য এসব বাঁশ ব্যবহার করা হবে। নার্সারি করার জন্য সরকারিভাবে কোনো অর্থ বরাদ্দ থাকে না। তাই আমাদের এ প্রক্রিয়ায় বাঁশ সংগ্রহ করতে হয়।  

বরগুনার বন সংরক্ষক মো. তরিকুল ইসলাম বলেন, আমি বিষয়টি জানি না। খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছি।  

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফারুক আহমেদ বলেন, জনগণের বাঁশ এনে নার্সারি করার কোনো সুযোগ নেই। যদি এ ধরনের ঘটনা ঘটে থাকে, তাহলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২৪
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।