ঢাকা, সোমবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বইমেলা

বইকেনার সঙ্গে উপভোগ্য সাংস্কৃতিক আয়োজনও

আদিত্য আরাফাত, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৫
বইকেনার সঙ্গে উপভোগ্য সাংস্কৃতিক আয়োজনও ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

গ্রন্থমেলা থেকে: বাংলা একাডেমির লিটলম্যাগ চত্বরে কয়েকজন তরুণ কবি দাঁড়িয়ে পড়ছিলেন তাদের স্বরচিত কবিতা। একজনের পর একজন কবিতা পড়ছেন আর অন্য কবিরা করছেন মূল্যায়ন।

পাশেই মূলমঞ্চে আলোচনা শেষে চলছে নৃত্য। তারপর গান।

সন্ধ্যায় এমন এমনই চিত্র দেখা যায় বইমেলায়। কবিতা, গান আর নাচে মেলায় আগতরা উপভোগ করেছেন সোমবারের (১৬ ফেব্রুয়ারি) অমর একুশের গ্রন্থমেলা।

মেলায় যারা আসেন তারা কেবল বই কিনতেই আসেন না। মেলা ঘিরে যেসব সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয় সেগুলোও উপভোগ করেন। বইমেলা শুরুর প্রথম দিন থেকেই বিকেলে থাকছে আলোচনা অনুষ্ঠান। সন্ধ্যায় চলে সাংস্কৃতিক আয়োজন। এ আয়োজন মেলায় আগতরা উপভোগ করেন।

সন্ধ্যায় দেখা যায়, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান থেকে অনেকেই বাংলা একাডেমিতে আসছেন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করতে।

অনুষ্ঠান উপভোগ করার সময় সন্ধ্যায় দর্শক সারিতে বসে কথা হয় মধ্যবাড্ডা থেকে আসা শায়রুল ইসলামের সঙ্গে। তিনি বলেন, বই কিনলাই দুটো। মাইকে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আওয়াজ কানে আসায় ঢুকে পড়লাম এখানে (মূলমঞ্চ)। ভালোই লাগছে।

সোমবার বইমেলার পরিবেশ ছিলো অনেকটা ছিমছাম। উপচেপড়া ভিড়ও নেই। আবার পাঠক শূন্যতাও নেই। যারা এসেছেন তাদের অনেকের হাতেই দেখা গেছে বই।

প্রকাশকদের মতে, বইমেলার অর্ধমাস যাওয়ার পরই বই বিক্রির পরিমাণ বাড়ে।

নতুন ৯৮ বই
১৬তম দিনে নতুন বই এসেছে মোট ৯৮টি। এর মধ্যে উপন্যাস ১৭টি, গল্প ১৭টি, কবিতার বই ২৮টি, প্রবন্ধের বই ৫টি, গবেষণামূলক বই একটি, ছড়ার বই ৫টি, শিশুসাহিত্য ৫টি, নাটকের বই একটি, বিজ্ঞান বিষয়ক বই একটি, ইতিহাস বিষয়ক বই ২টি, রম্য একটি, ধর্মীয় বই ৩টি, সায়েন্স ফিকশন একটি এবং অন্যান্য বিষয়ের বই ১১টি।

উল্লেখযোগ্য বইয়ের মধ্যে রয়েছে- অনিন্দ্যপ্রকাশ থেকে আহমদ রফিকের ‘রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই’ ও ‘বাঙালির স্বাধীনতা যুদ্ধ’, ফেয়ার পাবলিশিং থেকে আসাদ চৌধুরীর ‘জলের মধ্যে লেখাজোখা’, ভাষা প্রকাশ থেকে ধ্রুব এষের ‘আমার ভূত এবং আমার গল্প’, হেনরী স্বপনের ‘শ্রেষ্ঠ কবিতা’, ভাষাচিত্র প্রকাশন থেকে মুস্তাফিজ শফির ‘কবির বিষণ্ণ বান্ধবীরা’ প্রভৃতি।

মোড়ক উন্মোচন
সোমবার বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণের নজরুল মঞ্চে মোট ১৫টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন হয়েছে। অ্যাডর্ন পাবলিকেশন থেকে প্রকাশিত কবি শেলী নাজের কাব্যগ্রন্থ ‘পুরুষসমগ্র’, লীনা হাসিনা হকের গল্পগ্রন্থ ‘গোলাপবালা’ ও তারিক সজীবের উপন্যাস ‘তুমি আমারই ছিলে’ বই দু’টির মোড়ক উন্মোচন করেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান।

পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল উন্মোচন করেন ড. শামসুল আলমের ‘রাজনৈতিক ডামাডোলে স্বপ্ন যাত্রার অর্থনীতি’ বইটির মোড়ক। ভাষাচিত্র প্রকাশনী থেকে শিল্পী রহমানের বই ‘কবি পাহাড়ে যাব’ বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন সংগীতশিল্পী ফাহমিদা নবী।

সিসিমপুরের ই-বুক উদ্বোধন
বিকেলে একাডেমির নজরুল মঞ্চে উন্মোচিত হলো সিমিমপুরের প্রথম ই-বুক ‘বর্গরাজা আর ত্রিভুজরানি’র মোড়ক। উন্মোচন করেন শিশুসাহিত্যিক মুহাম্মদ জাফর ইকবাল। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন সিসিমপুরের কান্ট্রি প্রতিনিধি আনোয়ার হোসেন, আরটিভির প্রধান নির্বাহী সৈয়দ আশিক রহমান ও ওয়াটারমার্কে নির্বাহী পরিচালক জাকারিয়া মো. পলাশ।   বইটির সঙ্গে অ্যানড্রয়েড অ্যাপও খোলা হয়েছে। যার লিংক- http://tinyurl.com/mxq54n6 অথবা http://sisimpur.bengalfamily.com/ লিংক থেকে। এর মাধ্যমে বইটি বিনামূল্যে সরাসরি ডাউনলোড করা যাবে।

মেলামঞ্চের আয়োজন
এদিন মেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় ‘অধ্যাপক জিল্লুর রহমান সিদ্দিকী’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। এতে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আহমেদ রেজা। আলোচনায় অংশ নেন কাজল বন্দ্যোপাধ্যায়, অধ্যাপক শাহীনুর রহমান, রাশিদ আশকারী এবং মোহাম্মদ জয়নুদ্দীন। সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক আবুল আহসান চৌধুরী।

সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে ছিলো আতিকুর রহমান উজ্জ্বলের পরিচালনায় নৃত্য সংগঠন ‘ভোরের পাখি’র শিল্পীদের পরিবেশনা। সংগীত পরিবেশন করেন ফাহিমা হোসেন চৌধুরী, খায়রুল আনাম শাকিল, চঞ্চল খান, ইয়াসমিন মুশতারী, মকবুল হোসেন, চৌধুরী মোস্তাক হোসেন, অচিন্ত কুমার হাজং, বিবেকানন্দ দাস এবং মোহাম্মদ হানিফ।

মঙ্গলবারের আয়োজন
মঙ্গলবার বিকেলে মেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে ‘শিল্পী কাইয়ুম চৌধুরী’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। এতে প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন শিল্পী রফিকুন নবী। আলোচনায় অংশ নেবেন মফিদুল হক, মইনুদ্দীন খালেদ এবং সাজ্জাদ শরিফ। সভাপতিত্ব করবেন শিল্পী সমরজিৎ রায় চৌধুরী।

বাংলাদেশ সময়: ২০২০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৫

** কবিতা শুনতে বইমেলায়!
** বইমেলায় ডিএমপি কমিশনার

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa