ঢাকা, রবিবার, ৮ বৈশাখ ১৪৩১, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ১১ শাওয়াল ১৪৪৫

বইমেলা

গ্রন্থমেলায় গিরীশ গৈরিকের ‘মা : আদিপর্ব’র পাঠোন্মোচন

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০২৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৭
গ্রন্থমেলায় গিরীশ গৈরিকের ‘মা : আদিপর্ব’র পাঠোন্মোচন ‘মা : আদিপর্ব’র পাঠোন্মোচন

প্রজন্মের কবি গিরীশ গৈরিকের দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ‘মা : আদিপর্ব’র পাঠ উন্মোচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (১৫ ফেব্রুফারি) সন্ধ্যা ৬টা ৩০ মিনিটে বাংলা একাডেমির লিটলম্যাগ কর্নারে প্রধান অতিথি থেকে পাঠ উন্মোচন করেন সমাজ-চিন্তক ও লেখক আবুল কাসেম ফজলুল হক।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কবি সানাউল হক খান, কবি বিমল গুহ, শিল্পী সমর মজুমদার, কবি আলমগীর রেজা চৌধুরী, গীতিকার শহীদুল্লাহ ফরায়জী ও লোক-গবেষক সাইমন জাকারিয়া।

প্রধান অতিথি হিসেবে সমাজ-চিন্তক ও লেখক আবুল কাসেম ফজলুল হক বলেন, গিরীশ গৈরিকের মা : আদিপর্বের কবিতা আমাকে বারবার মায়ের কথা মনে করে দিয়েছে।

এ গ্রন্থের মা হয়ে উঠেছে বাংলার সার্বজনীন মা।

শিল্পী সমর মজুমদার বলেন, আমি দীর্ঘ বছর ধরে মায়ের চিত্রকর্ম এঁকেছি। তা কেমন করে গিরীশের কবিতার সঙ্গে যেনো মিলে গেলেঅ। আমি তার কাব্যগ্রন্থের উপর কাজ করে অনেক আনন্দ পেয়েছি কারণ, গিরীশ মনে হয় আমার মায়ের কথা কবিতায় অঙ্কন করেছেন।

অনুষ্ঠানের আয়োজন সহযোগী হিসেবে ছিলো শিল্প, সাহিত্য ও সংস্কৃতির ওয়েবম্যাগ ‘চিন্তাসূত্র’ এবং সাহিত্য বিষয়ক পাক্ষিক ‘জয়তী’ পত্রিকা।

‘মা : আদিপর্ব’র পাঠোন্মোচন

কবি গিরীশ গৈরিক মাকে নিয়ে চার পর্বের ষোলটি কাণ্ডে চার শতাধিক কবিতা লিখেছেন। প্রতিটি কাণ্ডে ২৫টি করে কবিতা রয়েছে। ‘মা : আদিপর্ব’ কাব্যগ্রন্থটি চারটি পর্বের প্রথম পর্ব এবং এ পর্বের চারটি কাণ্ডের (বৃক্ষকাণ্ড, অশ্রুকাণ্ড, স্তনকাণ্ড ও নদীকাণ্ড) মধ্যে ১০০টি কবিতা রয়েছে। ১১২ পৃষ্ঠার এ বইটি উৎসর্গ করা হয়েছে কথাশিল্পী সেলিনা হোসেনকে।  

গিরীশ গৈরিক মূলত কবি। তিনি কবিতার পাশাপাশি কাব্যবিষয়ক প্রবন্ধ ও কবিতা অনুবাদ করে থাকেন। তার প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘ক্ষুধার্ত ধানের নামতা’ (২০১৬)। তিনি ১৫ আগস্ট, ১৯৮৭ সালে গোপালগঞ্জ জেলার টুংগীপাড়া উপজেলায় জন্ম নেন। তিনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে হিসাববিজ্ঞানে স্নাতকসহ স্নাতকোত্তর করেন। পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন সাংবাদিকতা। তিনি স্কুলজীবন পার করেই তার নিজ গ্রামে গড়ে তুলেন ‘গীতাঞ্জলি সাহিত্য পরিষদ’।  

বাংলাদেশ সময়: ১৬২১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৭
এসএনএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।