ঢাকা, রবিবার, ১০ আশ্বিন ১৪২৯, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২৭ সফর ১৪৪৪

বইমেলা

শেষদিনের বইমেলা শুরু বেলা ১১টায়

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫১৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৭
শেষদিনের বইমেলা শুরু বেলা ১১টায় শেষদিনের বইমেলা শুরু বেলা ১১টায়

ঢাকা: সময় ফুরালো মাসব্যাপী অমর একুশে গ্রন্থমেলার। মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ৮টায় পর্দা নামবে ভাষার মাসে বাঙালির প্রাণের এ মেলার। তবে অগণিত লেখক-পাঠকের কথা বিবেচনায় রেখে একাডেমি কর্তৃপক্ষ শেষদিনের মেলার সময় বাড়িয়েছে চার ঘণ্টা।

বাংলা একাডেমির পরিচালক (জনসংযোগ, তথ্যপ্রযুক্তি ও প্রশিক্ষণ বিভাগ) অপরেশ কুমার ব্যানার্জী জানান, শেষ দিনে মেলার দ্বার খুলবে বেলা ১১টায়।

১ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া বইমেলায় এ পর্যন্ত মোট বই প্রকাশ হয়েছে ৩ হাজার ৪৬৬টি।

এরমধ্যে গল্পের বই ৪৭৮টি, উপন্যাস ৫৪৬টি, প্রবন্ধ ১৫৮টি, কবিতা ১ হাজার ৫৮টি, গবেষণাধর্মী ৭৭টি, ছড়ার ১১১টি, শিশুতোষ ১১৬টি, জীবনী ৬৯টি, রচনাবলি ৭টি ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক ৯৬টি।
এছাড়া নাটক ১৭টি, বিজ্ঞান ৩৬টি, ভ্রমণ ৬৬টি, ইতিহাস ৩৯টি, রাজনীতি ১৭টি, চিকিৎসা/স্বাস্থ্য বিষয়ক ২৮টি, কম্পিউটার বিষয়ক ৬টি, রম্য/ধাঁধার বই ১৫টি, ধর্মীয় ৯টি, অনুবাদ ১৮টি, অভিধান ২টি, সায়েন্স ফিকশন/ গোয়েন্দা ৩৪টি ও অন্য বই ৪৬৩টি।
 
শেষদিন মেলায় যা থাকছে:
অমর একুশে গ্রন্থমেলার শেষ দিনে বিকেল ৪টায় মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে ‘বহুত্ববাদী সমাজ ও ফোকলোর’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন শাহিদা খাতুন। আলোচনায় অংশ নেবেন সৈয়দ জামিল আহমেদ ও বিবি রাসেল। সভাপতিত্ব করবেন ড. ফিরোজ মাহমুদ।

সমাপনী অনুষ্ঠান:
সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় মেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে বাংলা একাডেমি আয়োজিত অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৭-এর সমাপনী অনুষ্ঠান। এতে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেবেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান। গ্রন্থমেলার প্রতিবেদন উপস্থাপন করবেন অমর একুশে গ্রন্থমেলা-২০১৭ এর সদস্য-সচিব ড. জালাল আহমেদ।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. ইব্রাহীম হোসেন খান। সভাপতিত্ব করবেন ইমেরিটাস অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে কবি শামীম আজাদ ও লেখক অনুবাদক নাজমুন নেসা পিয়ারিকে বাংলা একাডেমি পরিচালিত সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ্ পুরস্কার ২০১৬ দেওয়া হবে। এছাড়া অনুষ্ঠানে ২০১৬ সালে প্রকাশিত বিষয় ও গুণমানসম্মত সর্বাধিক সংখ্যক গ্রন্থ প্রকাশের জন্য চিত্তরঞ্জন সাহা স্মৃতি পুরস্কার-২০১৭; ২০১৬ সালে প্রকাশিত গ্রন্থগুলোর মধ্যে গুণমান ও শৈল্পিক বিচারে সেরা গ্রন্থের জন্য তিনটি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানকে মুনীর চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার-২০১৭; ২০১৬ সালে প্রকাশিত শিশুতোষ গ্রন্থের মধ্য থেকে গুণমান বিচারে সর্বাধিক গ্রন্থ প্রকাশের জন্য রোকনুজ্জামান খান দাদাভাই স্মৃতি পুরস্কার-২০১৭ এবং ২০১৭ সালের অমর একুশে গ্রন্থমেলায় অংশগ্রহণকারী প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে থেকে নান্দনিক স্টল/প্যাভেলিয়ন সজ্জায় সেরা প্রতিষ্ঠান হিসেবে তিনটি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানকে কাইয়ুম চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার-২০১৭ দেওয়া হবে।

সন্ধ্যায় থাকছে নিয়মিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন।

বাংলাদেশ সময়: ২১০৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৭
ইইউডি/এএ

** বাজে বিদায়ের সুর, সিরিয়াস বইয়ের খোঁজ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa