ঢাকা, সোমবার, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

বইমেলা

সার্বিক দিক থেকে বইমেলা সফল

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৫৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৭
সার্বিক দিক থেকে বইমেলা সফল অমর একুশে গ্রন্থমেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে আসাদুজ্জামান নূর/ছবি: বাদল

ঢাকা: এবারের অমর একুশে গ্রন্থমেলা সার্বিক দিক থেকে সফল হয়েছে বলে দাবি করেছেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। কোনো বিশৃঙ্খলা ছাড়াই এবারের মেলা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্নও হয়েছে বলেও জানান তিনি।

মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) গ্রন্থমেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে এসব কথা বলেন সংস্কৃতি মন্ত্রী।

আসাদুজ্জামান নূর বলেন, এবারের গ্রন্থমেলা সার্বিক দিক দিয়ে সফল ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

লেখক-পাঠক-প্রকাশক সবার সম্মিলিত ভাবনা ও প্রচেষ্টায় আগামীতে মেলায় আরও নতুনত্ব ও ইতিবাচকতা সংযোজিত হবে বলে আশা করি।
 
গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে বাংলা একাডেমি আয়োজিত সমাপনী অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা ভাষণ দেন একাডেমির মহাপরিচালক অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান।

মূল প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন মেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য-সচিব ড. জালাল আহমেদ। এতে সভাপতিত্ব করেন ইমেরিটাস অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম।
 
অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান বলেন, বাংলা একাডেমি আয়োজিত অমর একুশে গ্রন্থমেলায় এখন আর বই ক্রয়-বিক্রয়ের বার্ষিক অনুষ্ঠানে সীমাবদ্ধ নেই। এটি পরিণত হয়েছে আমাদের সাংস্কৃতিক জাগরণের উৎসমুখে।
 
বিশেষ অতিথির ভাষণে মো. ইব্রাহীম হোসেন খান বলেন, অমর একুশে গ্রন্থমেলা আজ দেশের গণ্ডি পেরিয়ে সারা বিশ্বে পরিচিতি লাভ করেছে জ্ঞানান্বেষু মানুষের মহামিলনমেলা হিসেবে।
অমর একুশে গ্রন্থমেলার সমাপনী অনুষ্ঠান/ছবি: ডিএইচ বাদলসভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম বলেন, মহান ভাষা আন্দোলনের বীর শহিদদের স্মৃতিতে আয়োজিত অমর একুশে গ্রন্থমেলা আজ বিশাল বিস্তৃতি লাভ করেছে। এই মিলনমেলা ভবিষ্যতে আরও বিস্তৃত হবে বলে আমরা আশাবাদী।
 
সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ্ পুরস্কার প্রদান:
অনুষ্ঠানে কবি শামীম আজাদ ও লেখক অনুবাদক নাজমুন নেসা পিয়ারিকে বাংলা একাডেমি পরিচালিত সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ্ পুরস্কার ২০১৬ প্রদান করা হয়। পুরস্কারপ্রাপ্ত লেখকদের হাতে পুরস্কারের অর্থমূল্যের ৫০ হাজার টাকার চেক, পুষ্পস্তবক, সনদ এবং ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

গুণীজন পুরস্কার প্রদান:
এছাড়া অনুষ্ঠানে ২০১৬ সালে প্রকাশিত বিষয় ও গুণমানসম্মত সর্বাধিক সংখ্যক গ্রন্থ প্রকাশের জন্য চিত্তরঞ্জন সাহা স্মৃতি পুরস্কার-২০১৭; ২০১৬ সালে প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে গুণমান ও শৈল্পিক বিচারে সেরা গ্রন্থের জন্য তিনটি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানকে মুনীর চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার ২০১৭; ২০১৬ সালে প্রকাশিত শিশুতোষ গ্রন্থের মধ্য থেকে গুণমান বিচারে সর্বাধিক গ্রন্থ প্রকাশের জন্য রোকনুজ্জামান খান দাদাভাই স্মৃতি পুরস্কার-২০১৭ এবং ২০১৭ সালের অমর একুশে গ্রন্থমেলায় অংশগ্রহণকারী প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানসমূহের মধ্যে থেকে নান্দনিক স্টল/প্যাভেলিয়ন সজ্জায় সেরা প্রতিষ্ঠান হিসেবে তিনটি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানকে কাইয়ুম চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার ২০১৭ প্রদান হয়।

পুরস্কারপ্রাপ্ত সকল প্রকাশককে ২৫ হাজার টাকার চেক, সনদ ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৬ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৭
ইইউডি/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa