ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বইমেলা

ভিন্নধর্মী বইয়ের খোঁজে কিশোররা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০১৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১৯
ভিন্নধর্মী বইয়ের খোঁজে কিশোররা বইমেলায় বই দেখছেন কিশার-কিশোরীরা-ছবি-শাকিল আহমেদ

গ্রন্থমেলা প্রাঙ্গণ থেকে: কিশোরদের মন বিচিত্র। তারা কী বই পছন্দ করে, কী পড়তে তারা ভালোবাসে, তা বোঝা সহজ নয়। কিশোরদের এই বিচিত্র মানস-পৃথিবী স্পর্শ করতে অনেক লেখকই লিখেছেন বিভিন্ন ধরনের বই। আর কিশোরেরাও খুঁজছে একটু অন্যকিছু!

শুক্রবার (২২ ফেব্রুয়ারি) মেলা ঘুরে দেখা গেছে, কিশোরদের জন্য অধিকাংশ প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান প্রকাশ করেছে নানা ধরনের বই। তবে বর্তমানে কিশোররা ভূত-প্রেতের গল্প-উপন্যাসে আগ্রহ বোধ করে না।

বিজ্ঞানের নিত্যনতুন উদ্ভাবনের ফলে তাদের চিন্তার জগৎ যেমন প্রসারিত হচ্ছে, তেমনি কৌতূহলও বাড়ছে।  

এ প্রসঙ্গে শিশু একাডেমির পরিচালক ছড়াকার আনজীর লিটন বলেন, বর্তমানে অধিকাংশ কিশোর-কিশোরীর জীবন যান্ত্রিক হয়ে পড়েছে। স্কুল থেকে ফিরে অনেকে ঘরবন্দি হয়ে পড়ে। এছাড়া রয়েছে পাঠ্য বইয়ের চাপ। ফলে তাদের মনোজগত হয়ে যাচ্ছে কল্পনাহীন, বর্ণহীন। তাদের জগত উজ্জ্বল করতে সহায়ক হতে পারে কিশোর সাহিত্য।

তাদের হাতে সুন্দর বই তুলে দেওয়ার প্রসঙ্গে নন্দিত শিশু সাহিত্যিক সৈয়দা আনোয়ারা হক বলেন, যেকোন সাহিত্য একটি বাচ্চাকে ছোট থেকেই গড়ে তুলবে। তবে আমরা ওতো সচেতন নই। আমরা শুধু রঙিন বই খুঁজি। আমাদের বাচ্চারা এখন ক্লাসিক বই খুব কম পড়ে। আমি মনে করি উন্নত দৃষ্টিভঙ্গি থেকেই আমাদের বাচ্চাদের ভালো মানের বই কিনে দিতে হবে। আমাদের অভিভাবকদের তাদের হাতে বই তুলে দেওয়ার ক্ষেত্রে অনেক সচেতন থাকতে হবে।

গ্রন্থমেলা ঘুরে দেখা গেছে, কিশোরদের জন্য বৈচিত্র্যময় নানা বই এনেছে বইমেলার অধিকাংশ স্টল ও প্যাভিলিয়ন। ঝকঝকে মলাট, আকর্ষণীয় অলংকরণ আর অঙ্গসজ্জার মতো বইগুলোর নামও বিচিত্র। তবে কিশোরদের কী ধরনের বই পছন্দ, কী পড়তে তারা ভালোবাসে, বোঝা সহজ নয়। তাইতো সমসাময়িক লেখকরা কিশোরদের চিন্তার জগৎ নিয়ে কিশোর রচনার প্রকরণ ও বিষয়ে এনেছেন পরিবর্তন।

এ প্রসঙ্গে শিশু-কিশোরদের বইয়ের জন্য খ্যাত পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্সের পরিচালক কামরুল হাসান শায়ক বলেন, কিশোরদের মনোজগতকে সমৃদ্ধ করতে, তাদের মধ্যে পাঠাভ্যাস গড়ে তুলতে কিশোর সাহিত্যের বিকল্প নেই। আমরা প্রতি বছর কিশোরদের জন্য নানামাত্রিক বই প্রকাশ করি। কিশোর সায়েন্স ফিকশন, গোয়েন্দা ও রহস্য উপন্যাসের প্রচুর চাহিদা রয়েছে।

বইমেলা ঘুরে দেখা গেছে, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, সুকুমার রায়, বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়, তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়ের কিশোরসমগ্র, কথাসাহিত্যিক মুহম্মদ জাফর ইকবালের কিশোর গল্পগ্রন্থ ‘যখন টুনটুনি তখন ছোটাচ্চু’, কথাসাহিত্যিক আনিসুল হকের কিশোর-তরুণদের জন্য অনুপ্রেরণামূলক বই ‘সফল যদি হতে চাও’, জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক ও সাংবাদিক মোস্তফা কামালের কিশোর অ্যাডভেঞ্চার গ্রন্থ ‘বান্দরবানের জঙ্গলে’, আয়মান সাদিক ও অন্তিক মাহমুদেও ‘ভাল্লাগে না’, চমক হাসানের ‘নিমিখ পানে: ক্যালকুলাসের পথ ভ্রমণ’ আদিত্য অনীকের ‘ছন্দা ও আমাদের মুক্তিযুদ্ধ’, অয়ংকর মধুপুর’সহ গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয়েছে কিশোরদের জন্য নানা ধরনের গল্প-উপন্যাস, কবিতা-ছড়াগ্রন্থ। আর এই সবগুলোর প্রতিই কিশোর-পাঠকদের আছে আলাদা রকমের আগ্রহ।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১৯
এইচএমএস/আরআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa