ঢাকা, রবিবার, ১০ আশ্বিন ১৪২৯, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২৭ সফর ১৪৪৪

বইমেলা

বইমেলায় এলে মনে হয় বইয়ের মধ্যে ডুবে আছি

ফিচার রিপোর্টার | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬০০ ঘণ্টা, মার্চ ৫, ২০২২
বইমেলায় এলে মনে হয় বইয়ের মধ্যে ডুবে আছি

ঢাকা: বইমেলার শিশু প্রহর। সেখানে দুরন্ত শিশুদের অনন্ত উপস্থিতি।

বিভিন্ন বয়সী শিশুরা স্টল ঘুরে ঘুরে বইয়ের পাতা উল্টে নিজেদের পছন্দের বই খুঁজছে। স্টলের পাশে থাকা কয়েকটি খেলাধুলার স্পটেও তাদের মধ্যে বেশ উচ্ছ্বাস লক্ষ্য করা গেছে।

শনিবার (৫ মার্চ) অমর একুশে গ্রন্থমেলার শিশু প্রহরে সকাল ১১টা থেকে শিশু-কিশোরদের ভিড় লক্ষ্য করা যায়। কেউবা বাবা-মায়ের হাত ধরে, কেউবা বন্ধুদের সঙ্গে আবার কেউবা শিক্ষকদের সঙ্গে এসেছে প্রাণের মেলায়।

মেলা ঘুরে দেখা গেছে, মেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে ছোটদের মজার মজার সব বইয়ের স্টল এবং বিনোদনকেন্দ্র সাজানো হয়েছে। শিশু চত্বরে প্রবেশ করলেই মনে হবে এ যেন কোনো শিশুরাজ্য। যেখানে শিশু-কিশোরদের রাজত্ব। এখানে রয়েছে শিশু-কিশোরদের সায়েন্স ফিকশন, ভূতের গল্প, কৌতুক এবং ছড়াসহ নানা ধরনের সব বই।

শিশু প্রহরে কথা হয় বই কিনতে আসা মাসুমা হক শাকিরার সঙ্গে। গত বছরের মতো এবারও সে বইমেলায় বই কিনতে এসেছে বান্ধবী সঙ্গে নিয়ে। বিজ্ঞান এবং ছোটদের গল্পের বই তার ভীষণ পছন্দ। আর চার বছর বয়সী শিশু জিনাত জানায়, তার কার্টুন দেখতে ভালো লাগে। তাই সে কয়েকটি কার্টুনের বই কিনেছে।

মাসুমা হক শাকিরা বলে, বইমেলা মানেই একটা আলাদা আকর্ষণ। বই পড়া হয়, কেনাও হয়। কিন্তু বইমেলায় এলে মনে হয় বইয়ের মধ্যে ডুবে আছি।

ছেলে আবরারকে নিয়ে মেলায় এসেছেন আদনান-আরিফা দম্পত্তি। জানতে চাইলে তারা বলেন, মেলার প্রথম দিন থেকেই বাচ্চার আবদার মেলায় আসবে। তাই ওকে নিয়ে মেলায় আসা। ওর পছন্দমতো কিছু বইও কেনা হবে।

শিশুপ্রহরে শিশু-কিশোরদের বাড়তি আনন্দ দিচ্ছে সিসিমপুরের বিভিন্ন চরিত্রগুলো। এছাড়া বাচ্চাদের জন্য আকর্ষণীয় সব মজার মজার বই সাজানো রয়েছে এই প্রাঙ্গণে। একই সঙ্গে শিশু চত্বরে সিসিমপুরের প্রিয় চরিত্রগুলোর সঙ্গেও সময় পার করে আনন্দিত শিশুরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৯ ঘণ্টা, মার্চ ০৫, ২০২২
এইচএমএস/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa