ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৩০ মে ২০২৪, ২১ জিলকদ ১৪৪৫

অর্থনীতি-ব্যবসা

রিহ্যাব মেলায় ১১০০ কোটি টাকার ঋণ প্রতিশ্রুতি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩৪০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৪, ২০১৮
রিহ্যাব মেলায় ১১০০ কোটি টাকার ঋণ প্রতিশ্রুতি বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনে কেন্দ্রে বর্ণাঢ্য সমাপনী অধিবেশনের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে রিহ্যাব ফেয়ার শেষ হয়। ছবি: ডিএইচ বাদল

ঢাকা: রিহ্যাব মেলায় ১ হাজার ১০০ কোটি টাকার গৃহঋণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি এসেছে। এ মেলায় ২৭ হাজার ১৬৯ জন ক্রেতা ও দর্শনার্থী প্রবেশ করেন, সাত শতাধিক ফ্ল্যাট-প্লট ও বাণিজ্যিক স্পেস বেচাকেনা হয়েছে। যার বাজার মূল্য ৬৩৮ কোটি টাকারও বেশি।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনে কেন্দ্রে ২১ থেকে ২৫ ডিসেম্বর পাঁচ দিনব্যাপী রিহ্যাব ফেয়ার অনুষ্ঠিত হয়।

বৃহস্পতিবার (০৪ জানুয়ারি) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনে কেন্দ্রে বর্ণাঢ্য সমাপনী অধিবেশনের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে মেলা শেষ হয়।

 

সমাপনী অনুষ্ঠানে রিহ্যাব ফেয়ারের র‌্যাফেল ড্র বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।  

র‌্যাফেল ড্রতে প্রথম পুরস্কার প্রাইভেটকার পেয়েছেন উত্তরার পিয়ানা জামান রাফা নামের সাড়ে তিন বছরের এক শিশু। এ ছাড়া আরও ৯টি পুরস্কার দেওয়া হয়।  

সমাপণী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রিহ্যাব সভাপতি আলমগীর শামসুল আলামিন।  

তিনি বলেন, প্রতি বছরের চেয়ে এই রিহ্যাব মেলায় ক্রেতা বিক্রেতাদের সমাগম বেড়েছে। এতে রিহ্যাব সদস্যরা উপকৃত হয়েছেন। আগামীতে আরও বড় পরিসরে ভালোভাবে আয়োজন করার আশ্বাস দেন।  

রিহ্যাব সভাপতি বলেন, গত কয়েক বছর ধরে নীতিনির্ধারণী কিছু সমস্যার কারণে সঙ্কটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছিল আবাসন খাত। তবে ২০১৬ সালের ডিসেম্বরের মেলার পর থেকে এই খাত কিছুটা ঘুরে দাঁড়িয়েছে। বিশেষ করে ঋণের সুদ এক অংকের হওয়ায় অনেকেই নতুনভাবে আবাসন খাতে বিনিয়োগ শুরু করেছেন।  

মেলার উদ্দেশ্য ছিলো ক্রেতা ও বিক্রেতাকে এক ছাদের নীচে নিয়ে আসা। আমরা সেটা করতে পেরেছি।  

অনুষ্ঠানে রিহ্যাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি নুরুন্নবী চৌধুরী (শাওন) বলেন, আবাসন খাতে ২০০৮ সালের পর থেকে মন্দা যাচ্ছে। আমরা দায়িত্ব নেওয়ার পর এই খাতে নতুন করে গতি ফিরানোর চেষ্টা করছি।

তিনি বলেন, আবাসন খাতে ফ্ল্যাট এবং জমি নিবন্ধন ব্যয় ১৫ শতাংশ রয়েছে। এ ব্যয় কমিয়ে ৬ শতাংশ করার জন্য আমরা সরকারের কাছে প্রস্তাব করেছি। আগামী বাজেটে এই খাতের সব প্রতিকূলতা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হবে।

সমাপনী অনুষ্ঠানে রিহ্যাব ফেয়ার স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান শাকিল কামাল চৌধুরী ও প্রেস অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের কো-চেয়ারম্যান কামাল মাহমুদসহ পরিচালকরা উপস্থিত ছিলেন।  

পরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে দর্শকদের মাতিয়ে গান পরিবেশন করেন বিশিষ্ট কণ্ঠশিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ, রন্টি দাস ও রিহ্যাব সদস্য মিতা মির্জা।

বাংলাদেশ সময়: ০৫৩৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৫, ২০১৮
এমএইচ/এমএইউ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।