ঢাকা, সোমবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২০ মে ২০২৪, ১১ জিলকদ ১৪৪৫

অফবিট

খাদ্যশিকারি বেবুন সৈন্যরা

অফবিট ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৩, ২০১৭
খাদ্যশিকারি বেবুন সৈন্যরা খাদ্যশিকারি বেবুন সৈন্যরা

হ্যামাড্রিয়াস বেবুনরা (বৈজ্ঞানিক নাম Papio hamadryas) আফ্রিকা ও দক্ষিণ এশিয়ার জঙ্গলগুলোতে সংঘবদ্ধভাবে বসবাস করে। কুকুরমুখো এই বড় বানর বা মর্কটদের প্রত্যেকটি গোষ্ঠীতে সৈন্যদল থাকে। যারা শত্রুদের সঙ্গে লড়াই করে বা চোখ এড়িয়ে খাদ্য সংগ্রহ করে নিয়ে আসে দলের সকলের জন্য।  

তেমনই একটি বেবুন জনগোষ্ঠীর সৈন্যদের দেখা গেছে উত্তর আফ্রিকার জঙ্গলে। তারা অন্যদিনের মতোই রাতের ঘুম থেকে জেগে উঠে খুব ভোরে খাবারের সন্ধানে যাত্রার প্রস্তুতি নিচ্ছিল।

তাদের নিরাপদ বাঁধের বাসস্থান ত্যাগ করে গাছের গুঁড়ির শীর্ষে অবস্থান করছিল।  

বিবিসির চলচ্চিত্র নির্মাতা স্যার ডেভিড এটেনবারো ‘লাইফ’ ধারাবাহিকের জন্য চিত্তাকর্ষক দৃশ্যটি ধারণ করেন। সেখানে আরও দেখা যায়, বিশেষ ওই সকালে বেবুনরা তাদের যাত্রাপথে আটকে গিয়ে ওই উঁচু স্থানে অবস্থান নেয়। কারণ, তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী সৈন্যরা তাদের যাত্রাপথে হেঁটে যাচ্ছে।  

এ বানর গোষ্ঠী স্পষ্ট কোনো নেতা ছাড়াই খুব জটিল সমাজে বাস করে। দলের ৪০০ সদস্য ছিল কয়েক ডজন ক্ষুদ্র দলে বিভক্ত। প্রতিটি দলই পুরুষ নিয়ন্ত্রিত।

সব বাহিনীর মতোই এদেরও কঠোর শৃঙ্খলা রয়েছে, দলনেতাদের আদেশও মেনে চলে।

তবে কখনো কখনো শত্রুদের সঙ্গে যুদ্ধের বিশৃঙ্খলায় এ বেবুন পুরুষ সৈন্যরা পিছু হটে এবং নারীরা চুরি হয়ে যায়।

প্রাচীন মিশরীয়দের দ্বারা একবার সম্মানিত হয়ে তারা ‘পবিত্র বেবুন’ নামেও পরিচিত।

বাংলাদেশ সময়: ০২২৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৪, ২০১৭
এএসআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।