ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ জুলাই ২০২২, ০৭ জিলহজ ১৪৪৩

অফবিট

দুঃস্বপ্নের জন্য দায়ী রাতে দেরি করে খাওয়া!

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২২
দুঃস্বপ্নের জন্য দায়ী রাতে দেরি করে খাওয়া! ...

দেরি করে রাতের খাবার খাওয়া আমাদের অভ্যাসে পরিণত হয়ে গেছে। দেরি করে রাতের খাবার খাওয়ার জন্য অজুহাতের অভাব হয় না আমাদের।

এর ফলে শরীরে বাসা বাঁধছে অনেক অজানা রোগ।

রাতে দেরি করে খাবার খেলে শরীরে স্ট্রেস হরমোনের আধিক্য বেড়ে যায়। যার জন্য মনের ওপর এর খারাপ প্রভাব পড়ে।

অনেক রাতে খাবার খাওয়ার আরও একটি অসুবিধা হলো ঘুমের সমস্যা। এছাড়াও সুগার লেভেল বেড়ে যায়। যে কারণে ডায়াবেটিসও হয়। খাবার যদি পেটে দেরি করে ঢোকে তবে শরীর ফ্রি রাডিক্যাল মুক্ত করতে অক্ষম হয়ে পড়ে। যার ফলে কোষের কার্যক্ষমতা হ্রাস পায়। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে, ক্যান্সারের সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, যত বেশি রাত করে খাওয়া হয় ততই আমাদের শরীরের মধ্যে ইনসুলিন ও লেপ্টিন হরমোনের ক্ষরণ বেড়ে যায়। যা বেশি করে চর্বি জমাতে সাহায্য করে।

এই নিয়ে গবেষণা কী বলছে? আসুন জেনে নেই-

পেনসিলভানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পেরেলম্যান স্কুল অফ মেডিসিনের গবেষকরা বলছেন যে, অসময়ে খেলে বিশেষ করে রাতের বেলা যথাযথ সময়ের পর খেলে কোলেস্টেরলের মাত্রা অস্বাভাবিক হারে বাড়ে। যে কারণে ওজন বাড়ে, আর সেটাই ওবেসিটির দিকে ঠেলে দেয় মানুষকে।

একটি সমীক্ষা চালানো হয় সঠিক ওজন সম্পন্ন ৯ জন মানুষের ওপর। যেখানে সকাল সাতটা থেকে রাত আটটার মধ্যে তিনবেলা খাবার দিয়ে তাদের ওপর আট সপ্তাহ ধরে একটি গবেষণা করা হয়। এর মধ্যে কিছু জন রাত ১১টার পর খাবার গ্রহণ করেন। তাদের ক্ষেত্রে শারীরিক পরীক্ষা করে দেখা যায় যে তাদের শরীরে গ্লুকোজ, হৃদরোগ ও ট্রাইগ্লিসারয়েড এর মাত্রা বেড়ে স্বাস্থ্যের ব্যাধি দেখা দিয়েছে।

এছাড়া ক্যালিফোর্নিয়ার একদল গবেষক জানাচ্ছেন, রাতে দেরিতে খেলে মস্তিষ্কে খারাপ প্রভাব পড়ে ও স্মৃতিশক্তি ক্ষয় হয়। দুঃস্বপ্ন যারা দেখেন তাদের অধিকাংশই রাতে দেরি করে খেয়ে ঘুমাতে যান।

আবার তুরস্কের ডকুস ইউনিভার্সিটির গবেষণা বলছে, দেরিতে খেলে পরের দিন বেশি ক্ষুধা অনুভূত হয়। যার কারণে পরবর্তীতে ওজন বেড়ে যায়।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২২
জেডএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa