ঢাকা, শনিবার, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ০২ মার্চ ২০২৪, ২০ শাবান ১৪৪৫

বাণিজ্যমেলা

ছুটির দিনে বাণিজ্য মেলায় উপচে পড়া ভিড়

ইফফাত শরীফ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৩৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৬, ২০২৩
ছুটির দিনে বাণিজ্য মেলায় উপচে পড়া ভিড়

ঢাকা: গত কয়েকদিনের শীতের প্রভাবে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় দর্শনার্থী এবং ক্রেতার সংখ্যা কম ছিল। তবে মেলার ৬ষ্ঠদিনে শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) প্রথম সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়াতে অন্য দিনগুলোর তুলনায় ক্রেতা ও দর্শনার্থীর সংখ্যা বেড়েছে।

সেই সঙ্গে বিক্রিও বেড়েছে। ফলে একপ্রকার আনন্দ বিরাজ করছে মেলার স্টলগুলোর বিক্রয় কর্মীদের মধ্যে।

শুক্রবার দুপুর থেকে সরেজমিনে বাণিজ্য মেলা ঘুরে এবং বিভিন্ন স্টলের কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে এমন চিত্র দেখা গেছে।

এদিন মেলার গেট খুলে দেওয়ার পর সকালের দিকে লোক সমাগম কিছুটা কম ছিল। পরবর্তীতে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে লোকসমাগম বাড়তে থাকে এবং এক সময় ভিড়ে পরিণত হয়।

সেভয় আইক্রিম গ্যালারির বিক্রয় প্রতিনিধি নাদিয়া ইসলাম ইকরা বাংলানিউজকে বলেন, গত কয়েকদিন প্রচণ্ড শীতের কারণে মেলায় ক্রেতা কম ছিল। তাই বেচাকেনা তেমন একটা ভাল হয়ান। সে তুলনায় আজ ছুটির দিন হওয়ায় দর্শণার্থী বেশি। যদিও এখন পর্যন্ত বেচাকেনা কম। আশাকরি শীতের তীব্রতা কমলে বেচাকেনা বাড়বে।

বাণিজ্য মেলার ৬ষ্ঠ দিনে মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড়। কেউ এসেছেন বন্ধু-বান্ধবদের নিয়ে। কেউবা এসেছেন পরিবার পরিজন নিয়ে। এদের মধ্যে বেশিরভাগই মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে ছবি তুলে সময় কাটাচ্ছেন। আবার অনেকে পছন্দের পণ্যটি খুঁজছেন এবং কেনা-কাটা করছেন।

মেলায় সুপার ডুপার সবজি কাটার স্লাইসার মেশিন বিক্রি করছেন মিরপুরের বাসিন্দা আকরাম। বিগত ১৪ বছর যাবত মেলায় অংশ নিচ্ছেন। এবারের মেলায় তিনি ৬ পিসের সবজি কাটার মেশিন বিক্রি করছেন। যেগুলো দিয়ে বিভিন্ন ডিজাইনের বা আকৃতির সবজি কাটা যায়। এই ৬ পিসের সবজি কাটার দাম ১৪০০ টাকা। তবে মেলা উপলক্ষে ৫৭ শতাংশ ছাড়ে বিক্রি করছেন ৬০০ টাকায়।

মেলায় ‘বিনিঘর’ নামের একটি স্টলে হাতে বানানো পাটজাত পণ্য বিক্রি করছেন। তারা হাতে বানানো পাটের ফ্লোর মেট বিক্রি করছেন ১৩৯০ টাকায়। তবে মেলা উপলক্ষে বিশেষ ছাড়ে এই ফ্লোর মেট বিক্রি করছেন ৯৯০ টাকায়। সঙ্গে প্লান্ট বাসকেটও বিশেষ ছাড়ে বিক্রি করছেন ৫৫০ টাকায়। এই প্লান্ট বাসকেট অনেকে ঘরে থাকা টবগুলোকে সাজানোর জন্য ব্যবহার করেন।

বিনিঘরের সিইও হোসাইন মাহমুদ এ পর্যন্ত বাণিজ্য মেলায় ৪ বার অংশ নিয়েছেন। তবে পূর্বাচলের মেলায় এবারই প্রথম তিনি অংশ নিয়েছেন। এছাড়া নিয়মিত এসএমই মেলায়ও অংশ নেন তিনি।

বিনিঘরের সিইও বাংলানিউজকে বলেন, পাটজাত পণ্য হচ্ছে পরিবেশ বান্ধব। এগুলো মাটির সঙ্গে মিশে যায়। সর্বোপরি পরিবেশকে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য প্লাস্টিকের বিকল্প হিসেবে পাট জাত পণ্য আমাদের ব্যবহার করা উচিত।

মেলা থেকে পাটজাত পণ্য কিনতে এসেছেন যাত্রাবাড়ীর বাসিন্দা বেসরকারি কর্মকর্তা মো. নুরুজ্জামান। ঘর সাজানোর জন্য পাটের তৈরি ফ্লোরমেট, দেয়ালের ওয়ালমেট এবং ব্যাগ কিনেছেন তিনি। প্লাস্টিকের ব্যবহার কমাতে ও এধরনের হস্তশিল্পের প্রতি ভালবাসা থেকে তিনি এসব পণ্য কেনেন।

শুক্রবার বন্ধের দিন উপলক্ষে মেলায় আসা যাত্রীদের জন্য ১২০টি বিআরটিসি বাস বরাদ্ধ রাখা হয়েছে। যার মধ্যে দুপুর পর্যন্ত ৬৬টি বাস সার্ভিস দেওয়া শুরু করেছে। প্রয়োজনে বাসের সংখ্যা আরও বাড়ানো হবে বলে জানিয়েছেন বিআরটিসির শাটল সার্ভিসের দায়িত্বে থাকা ট্রাফিক অফিসার জাফর আহমেদ।

তিনি বাংলানিউজকে বলেন, আজকে আমাদের ১২০টা বাস বসুন্ধরার আশপাশে রাখা হয়েছে। যার মধ্যে ৬৬টা দুপুর পর্যন্ত সার্ভিস দিচ্ছে।   বসুন্ধরার বাইরে বিআরটিসি ডিপোতে আরও ৩০টি বাস রাখা আছে। শুক্রবার বন্ধের দিন হওয়ায় লোকসমাগম বাড়বে। সে কথা মাথায় রেখে আজ এতগুলো বাস নামানো। গত দুইদিন শীতের কারণে দর্শনার্থী কম থাকায় ২৫টি করে বিআরটিসির শাটল সার্ভিস চালু ছিল। আজকে মেলা ১০টা পর্যন্ত চলবে। তবে যাত্রী যতক্ষণ পর্যন্ত থাকবে, ততক্ষণ চলবে। একজন যাত্রী থাকলেও আমরা বাস পরিচালনা করব- এমনটাই জানিয়েছেন বিআরটিসির এই কর্মকর্তা।

বাংরাদিশে সময়: ১৬৩৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৬, ২০২৩
ইএসএস/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।