ঢাকা, রবিবার, ১ বৈশাখ ১৪৩১, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৪ শাওয়াল ১৪৪৫

নির্বাচন

বিসিসি নির্বাচনে মেয়র ও কাউন্সিলর পদে ৩ সাংবাদিকের মনোনয়ন দাখিল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮০২ ঘণ্টা, মে ১৭, ২০২৩
বিসিসি নির্বাচনে মেয়র ও কাউন্সিলর পদে ৩ সাংবাদিকের মনোনয়ন দাখিল

বরিশাল: বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার লক্ষে মেয়র ও কাউন্সিলর পদে তিন সংবাদকর্মী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

মঙ্গলবার (১৬ মে) রাতেেএ তথ্য নিশ্চিত করেছে সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়।

মেয়র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আসাদুজ্জামান। তিনি বলেন, নগরবাসীর সেবা করার জন্যই নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দিতা করতে চাচ্ছি।  তাই এ কারণে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করে দাখিলও করেছি।

তিনি আরও বলেন, বরিশাল শহরের সাধারণ জনগণ এক ধরনের অঘোষিত কারাগারে বসবাস করছে। এর থেকে মুক্তি পেতে মানুষ স্বতন্ত্রপ্রার্থী হিসেবে আমাকে ভোট দিবে। মানুষের ভালোবাসা ও আশ্বাস পেয়েই আমি নির্বাচনের মাঠে নেমেছি।

এদিকে সাধারণ আসনে কাউন্সিলর পদে ১৭ নম্বর ওয়ার্ডে মো. সালাউদ্দিন সিকদার ও ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে মো. রেদওয়ানা রানা মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

কাউন্সিলর প্রার্থী মো. রেদোয়ান রানা বলেন, ওয়ার্ডবাসীর বিপদে-আপদে সবসময় পাশে থাকার চেষ্টা করি। আর নিজ এলাকায় বসবাস করি বিধায় মানুষ ডাকলেই কাছে পায়, বিশেষ করে করোনার সময় আমাকে যেভাবে মানুষ কাছে পেয়েছে বর্তমান কাউন্সিলরকে সেভাবে পায়নি।  আমি মনে করি মানুষ আমাকে ভোট দিব। জনগণের আশ্বাসে আমি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি।

এদিকে কাউন্সিলর প্রার্থী মো. সালাউদ্দিন সিকদার বলেন, আমি সবসময় জনতার কাতারে ছিলাম, আর তাই সাধারণ জনগণের আশ্বাসে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি। মহামারি করোনা থেকে শুরু করে এমন কোনো বিপদ-আপদ নেই যে মানুষের পাশে ছিলাম না। আমার কখনও ধনী-গরীবকে আলাদা চোঁখে দেখিনি। ওয়ার্ডবাসী বিগত দিনে কিংবা এখন আমাকে যেভাবে কাছে পায়, ভবিষ্যতেও পাবে। আর আমি নির্বাচিত হলে তরুনদের কর্মসংস্থান এবং জলাবদ্ধতাসহ ওয়ার্ডবাসীর সমস্যা নিরসনে কাজ করবো।

উল্লেখ্য, এই তিনজনই স্থানীয় পত্রিকায় দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন পদে রয়েছেন।

নির্বাচন কমিশনের বেধে দেওয়া সময়ের মধ্যে এখন পর্যন্ত মেয়র পদে ১০ জন, সাধারণ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ১৪৬ জন এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ৪২ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

রিটার্নিং অফিসার হুমায়ূন কবির বলেন, ২৩৩ জন প্রার্থী মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করলেও ১৯৮ জন জমা দিয়েছেন। ১৬ মে মনোনয়নপত্র উত্তোলন ও জমাদানের শেষ দিন ছিল। যাচাই-বাছাই ১৮ মে ও প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৫ মে। প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হবে ২৬ মে। ভোটগ্রহণ হবে ১২ জুন।

বাংলাদেশ সময়: ০৮০২ ঘণ্টা, মে ১৭, ২০২৩
এমএস/ এসএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।