ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ কার্তিক ১৪২৮, ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

বাবুলের পর এবার বিজেপি ছাড়লেন অনিন্দ্য

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৩৪ ঘণ্টা, আগস্ট ৭, ২০২১
বাবুলের পর এবার বিজেপি ছাড়লেন অনিন্দ্য

কলকাতা: সদ্য বিজেপি ছেড়েছেন সংগীতশিল্পী সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। এবার সেই একই সুর আরেক তারকার কণ্ঠেও।

তিনি বাংলা বিনোদন জগতের অভিনেতা অনিন্দ্য পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়।  

স্পষ্ট জানিয়েছেন, বিজেপি ছাড়ছি, নিশ্চিত। তাই নামের আগে আর ‘বিজেপি নেতা’ শব্দটা ব্যবহার করতে ইচ্ছুক নন অভিনেতা।

২০১৯ সালে ভারতের লোকসভা নির্বাচনের সময় বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন অনিন্দ্য। তবে তিন বছরেই মোহভঙ্গ। কিন্তু কেনো এ ক'বছরেই ভারতীয় জনতা পার্টির প্রতি এত বিদ্বেষ? অনিন্দ্য জানিয়েছেন, ভেবেছিলাম টলিউড ইন্ডাস্ট্রির জন্য কিছু করতে পারব। ইন্ডাস্ট্রির অন্দরে দিনের পর দিন অনেক অন্যায় দেখেই প্রতিবাদ করার জন্য বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলাম। কিন্তু সিনেজগতে সেই কাজ করার সুযোগই দিল না বিজেপি।

পাশাপাশি এ অভিনেতা বিজেপি শিবিরের 'ভাষা সন্ত্রাস' নিয়ে বেজায় ক্ষুব্ধ। ভোটের সময় শিল্পীদের উদ্দেশে গেরুয়া দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের ‘রগড়ে দেব’ মন্তব্যেও তার বেশ আপত্তি। বললেন, বিজেপির রাজ্য সভাপতি যদি খোদ এমন ভাষা প্রয়োগ করেন, তাহলে দলের নিচুতলার কর্মীদের কাছে শিল্পীদের মানটা কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়? আসলে ভারতীয় জনতা পার্টি কখনও বাংলার আবেগটাই বোঝার চেষ্টা করেনি। বিহার কিংবা উত্তরপ্রদেশে যে রাজনীতি চলে, বাংলার মানুষের কাছে সেটা কখনোই গ্রহণযোগ্য নয়। যার উত্তর বিধানসভা ভোটের ফলাফল।

তাহলে কি তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন অনিন্দ্য? উত্তরে তিনি বলেন, বামপন্থী মতাদর্শে বিশ্বাসী হয়ে কখনোই তৃণমূলে যোগ দেব না। টলি ইন্ডাস্ট্রির কল্যাণ সাধনের জন্যই বিজেপিতে গিয়েছিলাম। সেই সুযোগ যখন পাইনি, রাজনীতি থেকেই দূরে থাকব। রাজনৈতিক ময়দান হোক কিংবা ব্যক্তিগত জীবন, আত্মসমীক্ষা করাটা সবচেয়ে জরুরি।

বাংলাদেশ সময়: ০১৩৩ ঘণ্টা, আগস্ট ০৭, ২০২১
ভিএস/এসআই
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa