ঢাকা, রবিবার, ৮ কার্তিক ১৪২৮, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

কলকাতায় বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী পালিত 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১১৮ ঘণ্টা, আগস্ট ১৫, ২০২১
কলকাতায় বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী পালিত 

কলকাতা: কলকাতায় পালিত হয়েছে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস।

দিবসটি উপলক্ষে রোববার (১৫ আগস্ট) স্থানীয় সময় সকাল ৮টায় কলকাতার বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশন চত্বরে শোক দিবসের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়।

কর্মসূচির শুরুতে উপ-হাইকমিশনার তৌফিক হাসান উপ-হাইকমিশন প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করেন। এরপর জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর পাঠানো বাণী পাঠ করা হয়।  

বাণী পাঠ করেন যথাক্রমে উপ-হাইকমিশনের কাউন্সেলর (শিক্ষা ও ক্রীড়া) রিয়াজুল ইসলাম, কাউন্সেলর (কন্স্যুলার) মো. বশির উদ্দিন, প্রথম সচিব (প্রেস) ড. মো. মোফাকখারুল ইকবাল ও প্রথম সচিব (রাজনৈতিক) সানজিদা জেসমিন। বাণী পাঠ শেষে উপ-হাইকমিশন প্রাঙ্গণে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।  

এরপর উপ-হাইকমিশনের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি বিজড়িত তৎকালীন ইসলামিয়া কলেজে অর্থাৎ বর্তমানে মওলানা আজাদ কলেজের বেকার হোস্টেলে ২৪ নং বঙ্গবন্ধু স্মৃতিকক্ষে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর আবক্ষ ভাস্কর্যে শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন ও বিশেষ মোনাজাত করা হয়।  

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কলকাতা ইসলামিয়া কলেজের ছাত্র হিসেবে ১৯৪৫-৪৬ সালে ৮ স্মিথ লেনের বেকার গভর্নমেন্ট হোস্টেলের ২৪ নম্বর কক্ষের আবাসিক ছাত্র ছিলেন। পরে ১৯৪৬ সালে বঙ্গবন্ধু ইসলামিয়া কলেজ ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক (জিএস) নির্বাচিত হন।  

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ইসলামিয়া কলেজ থেকে ১৯৪৭ সালে বঙ্গবন্ধু রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও ইতিহাসে ব্যাচেলর ডিগ্রি অর্জন করেন।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে উপ-হাইকমিশনের মসজিদে বাদ যোহর মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয় এবং দুস্থ ও অনাথ শিশুদের মধ্যে খাবার বিতরণ করা হয়। মাস্ক পরিধান করে এবং যথাযথ সামাজিক দূরত্ব মেনে অনুষ্ঠানটি পরিচালিত হয়েছে।

এছাড়া এদিন বিকেলে ‘বাংলাদেশ গ্যালারি’তে এক আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কৃষিমন্ত্রী শোভন দেব চট্টোপাধ্যায়, সম্মানীয় অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অগ্নি নির্বাপন ও জরুরি পরিষেবা দপ্তরের রাষ্ট্রমন্ত্রী সুজিত বোস, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন, বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ মৈত্রী সম্মাননাপ্রাপ্ত বিশিষ্ট সাংবাদিক মানস ঘোষ এবং বিশিষ্ট লেখক ও শিক্ষাবিদ অধ্যাপক শুভরঞ্জন দাসগুপ্ত। এছাড়া উপস্থিত থাকবেন উপ-হাইকমিশনের সব কর্মকর্তা-কর্মচারী ও কলকাতার বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ।

বাংলাদেশ সময়: ১১১৩ ঘণ্টা, আগস্ট ১৫, ২০২১
ভিএস/এসআই
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa